আওয়ামী লীগ সরকার নীল নকশা তৈরি করছে: এরশাদ

107
Spread the love

Tangail_Pic_167377947 টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার আবার ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নীল নকশা তৈরি করছে। আর এ কারণে তারা স্থানীয় নির্বাচন দলীয় ভাবে করার জন্য আইন পাস করেছে। যাতে করে তারা পুনরায় ক্ষমতায় যেতে পারে। সোমবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় পার্টি টাঙ্গাইল জেলা শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এই সরকার দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই যদি না হতো তাহলে দুই বিদেশি খুন হতো না। যারা আমাদের রক্ষা করে সেই পুলিশ সদস্যকেই হত্যা করা হচ্ছে। এটা কোন দেশে আমরা বসবাস করছি। এরশাদ আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনের মেরুদণ্ড নেই। আমরা এই মেরুদণ্ড ছাড়া নির্বাচন কমিশন চাইনা। আমরা চাই নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন, যার মেরুদণ্ড রয়েছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বা বিএনপির কাছে সুবিচার পায়নি। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি একাই নির্বাচন করব। মানুষ পরিবর্তন চায়। আর ক্ষমতায় যাওয়াটা অসম্ভব কিছু না। আল্লাহ যদি চায় তাহলে ক্ষমতায় যাওয়াটা অসম্ভবের কিছুই নাই। জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আমরা ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়ার পর থেকেই কারো মূল্যবোধ নেই। সবাই মূলবোধ হারিয়ে ফেলেছে। এই সরকার নির্বাচন কমিশনকে ধ্বংস করে দিয়েছে। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হলে প্রতি পরিবারের মধ্যে রক্তপাত হবে বলে মন্তব্য করেন এরশাদ। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টিকে বিএনপি ধ্বংস করতে চেয়েছিল। এখন বিএনপির অস্তিত্ব ধ্বংসের মুখে। নির্বাচনে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো কেউ নেই। এরশাদ আক্ষেপ করে বলেন, আমি রক্তপাত চাইনি। এ জন্য ক্ষমতা ছেড়েছিলাম। আমাকে বলা হয়েছিল, আপনি ক্ষমতা ছাড়েন। লেবেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি করা হবে, কিন্তু সেদিন আমার সঙ্গে বেঈমানি করা হয়েছিল। এরশাদ বলেন, আমাকে স্বৈরাচার বলা হয়। পৃথিবীর কোনো স্বৈরাচার ক্ষমতা ছাড়ার পর পাঁচটি আসনে জয়ী হয়েছে। আমি কোনোদিন পরাজিত হইনি। আমি মানুষের কোনো ক্ষতি করি নাই। কাউকে খুন করি নাই। কাউকে বাড়ি ছাড়া করিনি। টাঙ্গাইল জেলা শাখার প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আব্দুস সবুর আসুদ ও জিএম কাদেরসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা। টাঙ্গাইল জেলা শাখার সদস্য সচিব মুহাম্মদ মোজাম্মেল হকের পরিচালনায় সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন, দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।


Spread the love