আজ দিনাজপুরে কয়লাখনি আন্দোলনের শোকদিবস

129
Spread the love

image_2069_261502দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী কয়লা খনি বিরোধী আন্দোলনের স্মরণীয় দিন হিসেবে আজ ২৬ আগস্ট বুধবার স্থানীয়ভাবে শোক দিবস পালিত হবে। দিবসটি যথাযথভাবে পালনের জন্য ফুলবাড়ীর বিভিন্ন অরাজনৈতিক পেশাজীবী সংগঠন ও ফুলবাড়ীবাসী সম্মিলিতভাবে এবং তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি পৃথকভাবে ফুলবাড়ীতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে কালো ব্যাচ ধারণ, গণজমায়েত, শোকর‌্যালি, স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা সভা, প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান, মিলাদ মাহফিল ও প্রার্থনা।
উল্লেখ্য, ২০০৬ সালের ২৬ আগস্ট নিজেদের অস্তিত্ব ও স্থায়ী সম্পদ রক্ষার স্বার্থে ফুলবাড়ীসহ আশপাশের কয়েকটি উপজেলার মানুষ ফুলবাড়ী কয়লা খনি বিরোধী আন্দোলনের যে ডাক দিয়েছিলেন সেই কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার গুলিতে ঘটনাস্থলে নিহত হন সুজাপুর চাঁদপাড়া গ্রামের মকলেছুর রহমানের ছেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্র তরিকুল ইসলাম, বারকোনা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে আমিন ও উত্তর সাহাবাজপুর গ্রামের সালেকিন। একই ঘটনায় দক্ষিণ সাহাবাজপুর গ্রামের প্রদীপ চন্দ্র, রতনপুর গ্রামের শ্রীমান বাস্কে, সুজাপুর গ্রামের বাবলু রায়সহ চিরতরে পঙ্গু হয় প্রায় ৩ শতাধিক মানুষ। এরপর ফুলবাড়ীর মানুষ গণআন্দোলন গড়ে তোলে। ফলে ফুলবাড়ীর উপর দিয়ে বাস, ট্রেন চলাচলসহ সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সারা দেশের সাথে কয়েকদিন ফুলবাড়ীর যোগাযোগ বিছিন্ন থাকে। ফুলবাড়ীর মানুষের গণআন্দোলনের মুখে ৩০ আগস্ট তৎকালীন সরকারের প্রতিনিধি দল ফুলবাড়ীবাসীর সাথে বৈঠক করে ৬ দফা সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করে।


Spread the love