আত্রাইয়ের উন্নয়নের রুপকার জননেতা ইসরাফিল আলম এমপি

120
Spread the love

IMG_20151026_083455মোঃ রুহুল আমীন, আত্রাই নওগাঁ : “এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব, এগিয়ে যাচ্ছে দেশ” -সেই সাথে সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছে নওগাঁ জেলার এক সময়ের অবহেলিত উপজেলা আত্রাই। উন্নয়নের ছোঁয়ায় উদ্ভাসিত আজ আত্রাই। আর এ উন্নয়নের রূপকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের পরীক্ষিত সৈনিক এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল মাটি ও মানুষের প্রিয় নেতা, উন্নয়নের রুপকার, মেহনতি মানুষের পরম বন্ধু, আত্রাই রানীনগর আসনে দুই বারের নির্বাচিত  সংসদ সদস্য জননেতা ইসরাফিল আলম এমপি। ভৌগলিক গত কারণে নওগাঁর আত্রাই উপজেলা এক সময় উন্নয়ন থেকে পিছিয়ে পড়েছিল। সেই দিক বিবেচনায় বর্তমানে আত্রাইতে যে উন্নয়নের জোয়ার বইছে তা সর্বসাধারণের এখন মুখে মুখে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আমুল পরিবর্তন হয়েছে আত্রাইয়ের প্রেক্ষাপট। উপজেলার বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার উন্নয়ন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, বান্দাইখাড়া নদীর উপর ব্রিজ, মোল্লা আজাদ ডিগ্রী কলেজ অনার্স কোচ চালু, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি নীড়, অসংখ্য  মসজিদ, মাদ্রাসা সংস্কার, কাচা রাস্তা পাকা করণ, আহসানগঞ্জ হাট থেকে বান্দাইখাড়া ১৪ কিলো মিটার পাকা করেন, ২’শ ৫০ শয্যার আধুনিক উপজেলা হাসপাতাল, আত্রাই উপজেলা প্রশাসনিক ভবন  নির্মাণ, এ সব কিছুর উন্নয়নের অগ্রনায়ক ইসরাফিল আলম এমপি। আত্রাই প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত উপজেলা পরিষদে ঢুকলে বোঝার উপায় নেই এই সেই ৫ বছর আগের আত্রাই। এখানে দোতলা নিউ মার্কেট, মৎস্য ভবন, কৃষি প্রশিক্ষন ভবন ইত্যাদি। সরেজমিনে ঘুরে কথা হয় একাধিক সাধারণ মানুষের সাথে। সাহেবগঞ্জ সরদারপাড়া গ্রামের জাহিদ হোসেন জানান, যত দ্রুততার সাথে আত্রাইয়ে উন্নয়নের পরিবর্তন ঘটছে তা আমরা আশা করতে পারিনি। একই গ্রামের ভ্যান চালক জামাল মিয়া জানান, আগে আমাদের রাস্তা ঘাট কাঁচা ছিল। বর্তমানে সবগুলো রাস্তা পাকা হয়ে গেছে। এখন আর কাচা রাস্তা চোখে পড়ে না। জানাগেছে, আত্রাই উপজেলাকে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে ইসরাফিল আলম এমপির। ইতোমধ্যেই তিনি আত্রাই নদী উপর একটি ব্রিজ জন্য বিশেষ পরিকল্পনা নিয়েছেন।  সমসপাড়ায় নদী উপর ব্রিজ,আত্রাই সীমানায় চলন বিল মৎস্য অভ্যরান্য ও পর্যটন কেন্দ্র, আত্রাই -সিংড়া সড়ক, আত্রাই – খাজুড়া হয়ে নাটোর সড়ক নির্মাণের মতো প্রকল্প নেয়া হয়েছে।  এছাড়া মসজিদ-মন্দিরসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলোকে নিয়মিত অনুদান প্রদান করা হচ্ছে। আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত ও সাধারন সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল বলেন, আত্রাই উপজেলাটি একেবারেই অবহেলিত একটি উপজেলাটি ছিল বিগত দিনে। এক সময় রক্তাক্ত  জনপদ হিসাবে পরিচিত  ছিল। তার পর সর্বহারা জেএমবির উত্থান । তিনি শক্ত হাতে  দমন করার ফলে আজ আত্রাইতে শান্তির সুবাতাস বইছে। আর সেই সাথে রেকর্ড পরিমান কাজ করে পাল্টে দিয়েছেন উপজেলার চিত্র।


Spread the love