আত্রাইয়ে রমজান মাসেও পল্লী বিদ্যুতের ভয়াভহ লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠগ্রাহক

59
Spread the love

মোঃ রুহুল আমীন, আত্রাই প্রতিনিধি : রমজান মাসেও নওগাঁর আত্রাইয়ে পল্লী বিদ্যুতের ভয়াভহ লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন বিদ্যুৎ গ্রাহকরা। বিদ্যুৎ এই আছে এই নাই অবস্থা। যদি যায় আর খরব নাই। সন্ধ্যায় বিদ্যুৎ চলে যায় আর আসে রাতে। তাও আবার লো-ভোল্টেজ নিয়ে। দিনের বেলায়ও বার বার চলে যায় বিদ্যুৎ। কখনোবা বিরামহীন বিদ্যু না থাকায় অতিষ্ট গ্রাহক। রমজানের প্রথম দিকে বিদ্যুৎ সরবরাহ মোটামুটি ভাল থাকলেও রোজা দু‘চার রোজার পর লোডশেডিং ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। বিদ্যুৎ সমস্যার ব্যাপারে জানাও যায়না আবার অফিসে যারা রয়েছেন তারা হয়তো ফোন রিসিপ করছেনা বা বন্ধ করে রেখেছেন। ফলে বিদ্যুৎ গ্রাহক ও রোজাদাররা অসহায় হয়ে পড়েছে এবং তাদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। নওগাঁ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির আত্রাই বিলিং এরিয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, আত্রাই উপজেলায় ৬টি ফিডারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। এ ফিডারগুলো চালু রাখতে প্রয়োজন পড়ে দিনে ৭ থেকে ৮ মেগাওয়াট ও রাতে ১০ থেকে ১১ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। অথচ দিনের বেলায় পাওয়া যাচ্ছে গড়ে ৪ মেগাওয়াট ও রাতের বেলায় ৭ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। এ বিদ্যুৎ দিয়ে ২-৩টি ফিডার চালু রাখা যায়। বাকি ফিডারের গ্রাহকরা লোডশেডিংয়ের শিকার হন। প্রতিবার ১টি ফিডারে ১ থেকে দেড় ঘণ্টা লোডশেডিং দিতে হয়। এতে দিনে রাতে ৬-৭ ঘণ্টার লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ছে আত্রাই এলাকার পল্লীবিদ্যুতের গ্রাহকরা। দিনের বেলায় কম হলেও রাতের বেলায় চরম ভোগান্তিতে পড়ছেন এসব গ্রাহকরা। আত্রাই পল্লীবিদ্যুৎ এরিয়া অফিসের এজিএম মো. আবুল কাশেম জানান, প্রয়োজনের তুলনায় প্রায় অর্ধেক বিদ্যুৎ সরবরাহ পাওয়ার জন্য লোডশেডিং বেশি হচ্ছে। এতে আমাদের করণীয় কিছুনেই। চাহিদা মাফিক বিদ্যুৎ কবে থেকে পাওয়া যাবে তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। তবে এ রমজান মাসে এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ী মহলের জোর দাবী সামনে ঈদ তাই যতদ্রুত সম্ভব বিদ্যুতের লোড সেডিং কমানোর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।


Spread the love