আসছে জিম্বাবুয়ে খেলতে ওয়ানডে

63
Spread the love

78965নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী জানুয়ারিতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের। তবে, জানুয়ারিতে নয়, দু’মাস এগিয়ে আগামী নভেম্বরেই ঢাকা আসার সম্ভাবনা রয়েছে এলটন চিগুম্বুরাদের। অস্ট্রেলিয়া সিরিজ স্থগিত হওয়ার কারণে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওই সিরিজটা এগিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সে মতে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে দুই ভাগে সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাবও দেয়া হয়েছে বিসিবির পক্ষ থেকে। বিসিবির প্রস্তাবে রাজিও হয়ে গেছে জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেট বোর্ড। প্রথম দিকে বিসিবির ইচ্ছা ছিল নভেম্বরে সিরিজের টেস্ট দুটি আয়োজনের; কিন্তু, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় আসরের কারণে নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই টেস্টের পরিবর্তে ওয়ানডে এবং টি২০ সিরিজ নিয়ে নতুন করে ভাবছে বিসিবি। উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, নভেম্বরেই দুটি টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসবে জিম্বাবুয়ে। সুতরাং, নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের সম্ভাব্য সফরের সূচীতে আনা হচ্চে পরিবর্তণ। টেস্টের বদলে প্রথম দফায় অনুষ্ঠিত হতে পারে ওয়ানডে এবং টি২০ সিরিজ। এমন তথ্য মিডিয়াকে জানিয়েছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণ দেখিয়ে বাংলাদেশ সফল স্থগিত করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। একই কারণে বাংলাদেশে নারী ক্রিকেট দলকে পাঠাচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকাও। এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ যে সত্যি ক্রিকেটের জন্য নিরাপদ, সেটা প্রমান করা
বেশ জরুরী হয়ে পড়েছে বিসিবির সামনে। এ কারণেই মূলতঃ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজটা এগিয়ে আনাতে চায় বিসিবি। যদিও আগামী ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত ব্যস্ততা রয়েছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দেলের। আর বিপিএলের তৃতীয় আসর মাঠে গড়াবে আগামী ২০ নভেম্বর। তাই ওই সময়ে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট সূচি আর বাংলাদেশের ক্রিকেট সূচির সমন্বয় করে নভেম্বরে
পাওয়া যায় মাত্র ১৭-১৮ দিন। আর এই অল্প সময়ে দুই টেস্ট আর এক প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন করাটা একটু কষ্টকর বিসিবির। সেই এখন বিসিবি বিকল্প ভাবতে শুরু করেছে। দুবাইয়ে আইসিসির চলতি সভার বাইরে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সূচি নিয়ে কথা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি। সেখানেই উঠে এসেছে বিকল্প পথ। সোমবার সাংবাদিকদের বিসিবি মিডিয়া কমিটির
চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, ‘ জিম্বাবুয়ে এখন নিজেদের দেশে সিরিজ খেলছে, ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত ব্যস্ত তারা। আমাদের এখানে আবার ২০ নভেম্বর বিপিএল শুরু হওয়ার কথা। জিম্বাবুয়ে সিরিজের জন্য ফাঁকা আছে বলতে গেলে ১ নভেম্বর থেকে ১৭-১৮ নভেম্বর। এই সময়ের মধ্যে দুটি টেস্ট ও একটি প্র্যাকটি ম্যাচ করা কঠিন। আগামী মাসে তাই ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজ হতে পারে। আর টেস্ট সিরিজ হবে জানুয়ারিতে।’ যদিও জিম্বাবুয়ান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে বিসিবির এখনও চু’ড়ান্ত কথা হয়নি। দুবাইয়ে আইসিসির চলতি সভার বাইরে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সূচি নিয়ে কথা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি। আর সেই সভা শেষে দেশে ফিরে এই বিষয়ে খোলাসা করবেন বিসিবি সভাপতি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এ বিষয়ে জালাল ইউনুস বলেন, ‘এই মুহূর্তে যা অবস্থা, তাতে ওয়ানডে সিরিজটা আগে হলেই সুবিধা বেশি। তবে এখনও আলোচনা চলছে। চূড়ান্তভাবে যা ঠিক হবে, বোর্ড প্রেসিডেন্ট দেশে ফিরে তা জানাবেন।’


Spread the love