ইমতিয়াজের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহ সিলেটের

66
Spread the love

fffনিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) তৃতীয় পর্বের প্রথম দিনেই সিলেট বিভাগের শুরুটা ছিল ভীষণ হতাশার। রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে ৮২ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে অলক কাপালির দল। তবে ইমতিয়াজ হোসেনের হার না মানা সেঞ্চুরি আর রুম্মান আহমেদের অপরাজিত ফিফটিতে বড় সংগ্রহের পথেই হাঁটছে সিলেট। বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে প্রথম দিন শেষে সিলেটের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৩৬ রান। ১২৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন ইমতিয়াজ। রুম্মানও সেঞ্চুরির অপেক্ষায় রয়েছেন, তিনি অপরাজিত আছেন ৮১ রানে। পঞ্চম উইকেটে এই দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে এসেছে ১৫৪ রান। এরআগে শনিবার সকালে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি সিলেটের। দলীয় ২ রানেই ফিরে যান ওপেনার শাহনাজ আহমেদ (১)। মনির হোসেনের বলে নাজমুল হোসেনকে ক্যাচ দেন তিনি। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে ইমতিয়াজ হোসেন ও জাকির হাসান মিলে প্রতিরোধ গড়লেও তাদের ৪৬ রানের জুটি ভাঙেন ফরহাদ রেজা। জাকিরকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি। জাকিরের ব্যাট থেকে আসে ১৮ রান। তার বিদায়ের পর দ্রুতই সাজঘরে ফেরেন রাজিন সালেহ (৩)। মধ্যাহ্ন বিরতির আগ পর্যন্ত সিলেটের সংগ্রহ ছিল ৩ উইকেটে ৬৮ রান। ইমতিয়াজ হোসেন ৪১ ও অধিনায়ক অলক
কাপালি ১ রানে অপরাজিত ছিলেন। তবে মধ্যাহ্ন বিরতির পরপরই ফরহাদ হোসেনের করা ২৯তম ওভারের প্রথম দুই বলে টানা দুই বাউন্ডারিতে অর্ধশতক পূর্ণ করেন ইমতিয়াজ। তবে অধিনায়ক অলক কাপালি ব্যক্তিগত ৩ রানে সানজামুল ইসলামের বলে ফরহাদ হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান। ৮২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে সিলেট।
এরপরই ঘুরে দাঁড়ায় সিলেট। রুম্মান আহমেদকে নিয়ে দলের হাল ধরেন এক প্রান্ত আগলে রাখা ইমতিয়াজ। দলের প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেওয়ার পাশাপাশি জাতীয় লিগে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন ৩০ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। বিশেষ করে, ৩৬ ওভার শেষে ৮২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়া সিলেটকে খাদের কিনারনা টেনে তুলে দৃঢ় অবস্থানে পৌঁছে দেন ইমতিয়াজ ও রুম্মান আহমেদ। অবিচ্ছিন্ন পঞ্চম উইকেটে ৫৪ ওভারে ১৫৪ রানের জুটি গড়ে তারা প্রথম দিন শেষ করেন। ইমতিয়াজ ১২৫ রানে এবং রুম্মান অপরাজিত রয়েছেন ৮১ রানে। সংক্ষিপ্ত স্কোর: সিলেট: ৯০ ওভারে ২৩৬/৪ (ইমতিয়াজ ১২৫*, রুমান ৮১*, জাকির ১৮; মইনুল ২/৪৪ ফরহাদ রেজা ১/৫৩ সানজামুল
১/৫২)।


Spread the love