ঈদকে সামনে রেখে পলাশবাড়ীতে সক্রিয় হয়ে উঠছে জাল টাকার কারবারিরা

55
Spread the love

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা, প্রতিনিধি : ঈদকে সামনে রেখে পলাশবাড়ীর জাল নোট চক্রের কারবারিরা সক্রিয় হয়ে উঠছে। পলাশবাড়ী উপজেলার হাট বাজার, ব্যাংক বীমা ও এনজিও সংস্থায় সম্প্রতি সময়ে জাল টাকা ধরা পড়ার তথ্য পাওয়া গেছে। জানা যায় জাল টাকার কারবারি ও ঐ সকল প্রতিষ্ঠানের কিছু অসাধু ব্যক্তি যোগ-সাজস করে এসব কাজ করছে। সহজ সরল গ্রাহক ও লোকজন অনায়াসে এসবের খপ্পরে পড়ে যায়। ফলে দ্রুত এক হাত থেকে অন্য হাতে বদল হয় জাল টাকা।পর্যায়ক্রমে সহজ গতির লোকজন ধরা পড়ে। কিন্তু মাফিয়া চক্র কারবারিরা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকে। ইদানিং উঠতি বয়সি তরুণদের এ কাজে নিয়োজিত করার সন্ধান পাওয়া গেছে। তাদের কে বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে ঈদকে সামনে রেখে অপ্রতিরোদ্ধ গড়ে তুলছে জাল নোটের সিন্ডিকেট। বিশেষ করে পলাশবাড়ীর গরুহাটে, চামরা হাটে ও মাঠের বাজার হাটে, ডোলভাঙ্গা, কোরপুরসহ কয়েকটি জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে জাল নোট। অনুসদ্ধানে জানা যায় উপজেলার বেশ কিছু এনজিও, কোম্পানি ও সংস্থার অসাধু কিছু লোকজন ঋণ সহ লেনদেনের মাধ্যমে জাল টাকার কারবারি করছে। প্রকাশ বিগত বছরে ড’জন খানেক জাল টাকার কারবারি ধরা পড়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে। কিন্তু আইনের ফাঁক ফোকরে অনেকেই পাড় পেয়ে যান। তবে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলার দুর্বলতায় জালিয়াতিরা সহজেই জামিন পায়। এতে জেল থেকে বেরিয়ে তাদের অপ্রতিরুদ্ধ সিন্ডিকেট বেপরোয়ায় চলতে থাকে। সচেতন মহল মনে করেন এসব বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার অনুসদ্ধানি প্রয়োজন। ইহা ছাড়াও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর হয়ে উঠলে এসব দেশ বিরোধী কারবারি বন্ধ হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। এদিকে ভ্রাম্যমান আদালতের কোন ব্যবস্থা নেই এখানে। কিন্তু জাল নোটের দৌরাত্মে অপরাধ দমনে কড়া আইন প্রয়োজন বলে মনে করেন স্থানীয় প্রশাসন।


Spread the love