ঈদ মৌসুমকে ঘিরে পর্যটকে ভরপুর কক্সবাজার

112
Spread the love

????????????????????????????????????

 আমিনুল কবির,কক্সবাজার : পবিত্র ঈদুল আযহার ছুটিতে পর্যটকদের পদভারে মুখরিত হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে সাগর সৈকতে পর্যটকদের যেন মহামিলন ঘটেছে। জেলার বিভিন্ন পর্যটন স্পট, হোটেল, মোটেল ও কটেজসমূহে প্রায় লাখেরও বেশি পর্যটক এখন অবস্থান করছে বলে সংশি¬ষ্ট সূত্র জানা গেছে।
এসব পর্যটকদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। প্রশাসনের সব ইউনিট সর্বোচ্চ সতর্কবস্থায় নজরদারি বাড়িয়েছে। কোথাও যাতে কোনও অনিয়ম না হয় সেজন্য প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে সমুদ্র সৈকত লাবণীর পাশে পুলিশ কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটকদের অভিযোগ দ্রুত আমলে নিয়ে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসন। পুলিশ প্রশাসনের সাদা পোশাকধারী লোকজন পর্যটকদের সঙ্গে মিশে গিয়ে অপরাধী সনাক্ত করার কৌশল গ্রহণ করেছে। মোতায়েন করা হয়েছে মহিলা পুলিশও।
কক্সবাজার হোটেল মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম সিকদার বলেন, দেশিবিদেশি অগণিত পর্যটক ৩ শতাধিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস, রেস্ট হাউস, কটেজ ও আবাসিক হোটেলে উঠেছেন। কোথাও এখন ঠাঁই নেই। ঈদের ছুটিতে সব গ্লানি মুছে বেড়ানোর পাশাপাশি একে অপরের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে এসব দেশিবিদেশি পর্যটক এখন কক্সবাজারে ভিড় জমিয়েছে। নারী পুরুষ, শিশু, আবালবৃদ্ধবণিতা কেউ বাদ যায়নি।
কক্সবাজারের তারকা মানের হোটেল কক্স-টুডের জেনারেল ম্যানেজার সাখাওয়াত হোসেন জানান, প্রতিনিয়তই অসংখ্য পর্যটক হোটেল রুম বুকিং দেওয়ার জন্য কল করছেন। কিন্তু, নতুন করে কাউকে হোটেল রুম বুকিং দেওয়া সম্ভবপর হচ্ছে না। সবাই এখানকার নৈসর্গিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করার জন্য ছুটে আসছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, সপরিবারে, বন্ধু–বান্ধবসহ দলবদ্ধ পর্যটকদের পাশাপাশি নব দম্পত্তি, স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্র–ছাত্রী, দেশের বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীসহ বিভিন্ন স্তরের দেশীয় পর্যটকদের আনাগোনা আগের তুলনায় অনেকাংশে বেড়েছে।


Spread the love