কক্সবাজারে হাত বাড়ালেই মিলছে যৌন উত্তেজক এর্নাজি ড্রিংকস

88
Spread the love

DSCN18861আমিনুল কবির,কক্সবাজার : কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন দোকানগুলোতে হাত বাড়ালেই পাওয়া যায় বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন বিভিন্ন রকমের যৌন উত্তেজক ও নিরব ঘাতক বিভিন্ন এর্নাজি ড্রিংকস। নেশার জগতে এখন নীরব ঘাতকের আরেক নাম এর্নাজি ড্রিংকস। বাহারী নামে বাহারী বোতলে বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনহীন এসব এর্নাজি ড্রিংকস। শহরের সবখানে ছেয়ে গেছে মাদকের উপাদান মিশ্রিত এসব এর্নাজি ড্রিংকস। শহরের যে কোন মুদি দোকান,ফাষ্ট ফোডের দোকান ও পানের দোকানে হাত বাড়ালেই পাওয়া যাচ্ছে রুচিতা ফিলিংস,ড্রাগন,কিং ফিসার,হট ফিলিংস,জিনসিং,জিনসিং প্লাস,হর্স ফিলিংস,জিনজেন (শরবতে জিনসিং), মাশরুমসহ বিএসটিআই এর অনুমোদনহীন বিভিন্ন রকমের এর্নাজি ড্রিংকস। এছাড়া হোটেল মোটেল জোনের আনাচে কানাচেও মুদির দোকান,ফাষ্ট ফোডের দোকান ও পানের দোকানে মিলছে এসব এর্নাজী ড্রিংকস। স্কুল গামী কিশোররাও এগুলো কিনছে দেদারছে। কিন্তু প্রকাশ্য শহরের বিভিন্ন দোকানে এসব বিক্রি হলেও শহরে এর বিরুদ্ধে প্রশাসনের কোন অভিযান নেই।
সরজমিনে দেখা গেছে, মুদি দোকান,পানের দোকান,জেনারেল ষ্টোর,কনফেকশনারির দোকানসহ বিভিন্ন স্থানে প্রচলিত অন্যান্য পাণীয়র সঙ্গে সাজানো আছে এসব এর্নাজি ড্রিংকস । এসব এর্নাজি ড্রিংকের গায়ে লেখা আছে মিক্সড ফ্রুড ড্রিংকস। শুধু প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য। বাজারঘাটার এক দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় মাদকাসক্ত যুবকরাই এসব ড্রিংকস বেশী কিনছে। এগুলোর প্রতিটির দাম ৫০ থেকে ৭০ টাকা পর্যন্ত।
এসব একাধিক সেবনকারীর সাথে কথা বলে জানা যায় এগুলি সেবনের পর শরীরে বিশেষ অনভুতি সহ যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে। বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায় বাজারে প্রচলিত বেশ কয়েকটি এর্নাজি ড্রিংকে মাদকের ভয়ংকর উপাদান পাওয়া গেছে যা আগামীতে তরুন প্রজম্মকে ভয়াবহ স্বাস্থ্য ঝুকির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।


Spread the love