খানাখন্দে ভরা আত্রাই-পোড়াখালী সড়ক, জনদুর্ভোগ চরমে

73
Spread the love

71মোঃ রুহুল আমীন , আত্রাই প্রতিনিধি : নওগাঁর আত্রাই-পোড়াখালী সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এ সড়ক দিয়ে বর্তমানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, আত্রাই উপজেলা সদর থেকে বিপ্রবোয়লিয়া পর্যন্ত প্রায় ৮ কিলোমিটার সড়কের বেহাল দশা দীর্ঘদিন যাবৎ খানাখন্দে ভরে রয়েছে।আত্রাই উপজেলার সাথে সরাসরি যোগাযোগের জন্য এ সড়কটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক। এ সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত সিএনজি, ভটভটি, অটোরিকসা, মোটরসাইকেল সহ বিভিন্ন প্রকারের শত শত যানবাহন চলাচল করে। এছাড়াও উপজেলার পাঁচুপুর ও নাটোর জেলা নলডাঙ্গার খাজুরা ইউনিয়নের সড়ক সংলগ্ন প্রায় অর্ধশত গ্রামের লোকজনের যোগাযোগের একমাত্র নির্ভর এ সড়ক। সড়কটি নির্মাণের পর থেকে এর প্রয়োজনীয় সংস্কার না করায় বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়ে বেহালদশা হয়ে পড়েছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত এ সড়ক দিয়ে চলাচল করছে শত শত যানবাহন। ঘটছে একের পর এক ছোট বড় দুর্ঘটনা। এ সড়কে ভ্যান চালক আফাজ উদ্দিন খলিফা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে এ সড়কের বেহাল অবস্থা হয়ে থাকলে ও এর কোন সংস্কার না করায় আমাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চালাতে হয়। বিশেষ করে উপজেলার সাহেবগঞ্জ সরদারপাড়া, খনজোর ও জয়সাড়া নামকস্থানে যে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে এতে একদিকে জীবনের ঝুঁকি অপর দিকে গাড়ির ও অনেক ক্ষতি হয়ে যায়। উপজেলা নবাবেরতাম্বু গ্রামের ওবায়দুল হাসান টুটুল বলেন, আমাদের উপজেলা সদর সাথে যোগাযোগের একমাত্র পথ এ সড়ক। সড়কটির বেহালদশা হয়ে থাকায় আমাদের পণ্য সামগ্রী পরিবহনে ও কষ্ট হয়। আবার সময় ও অনেক বেশি লেগে যায়। খনজোর জয়সাড়া গ্রামের বাসিন্দা  আমজাদ হোসেন বলেন, সড়কটি বেহাল দশা হওয়ায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়। বৃহত্তর জনগোষ্ঠির স্বার্থে দ্রুত সড়কটির প্রয়োজনীয় সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন। এদিকে বিপ্রবোয়লিয়া গ্রামের পাকাকরণ থেকে প্রায় ২ কিলোমিটার সড়ক প্রায় ৩ বছর ধরে খোয়া বালি দিয়ে রেখেছে কিন্ত রোলার না করায় একটু বৃষ্টি হলে সড়ক দিয়ে চলাচল করা কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়ে। বিপ্রবোয়ালিয়া গ্রামের আব্বাছ আলী বলেন, পাকাকরণ থেকে এ রাস্তায় খোয়া বালি দিয়ে রাখার ফলে চলাচল খুব অসুবিধা হচ্ছে। এ বিষয়ে আত্রাই উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মোবারক হোসেন  বলেন, এ রাস্তা সংস্কারের জন্য টেন্ডার হয়ে গেছে, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে সংস্কার কাজ শুরু হবে।


Spread the love