খেজুরগাছের রস সংগ্রহে ব্যস্ত গাবতলীর গাছিরা

66
Spread the love

imagesবগুড়া থেকে আল আমিন মন্ডল : বগুড়া গাবতলীর গাছিরা এখন খেজুরগাছ থেকে রস সংগ্রহের জন্য গাছের পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় কাঠাচ্ছেন। উপজেলার সর্বত্রই এখন গ্রামবাংলার ঐতিহ্যের প্রতীক মধুবৃক্ষ (খেজুরগাছ) কে ঘিরে গ্রামীন জনপদে উৎসবমূখর হয়ে উঠছে।

জানাযায়, শীত মৌসুমে গাছিরা কোমরে মোটারশি বেঁধে গাছে ঝুলে রস সংগ্রহ করছেন। কার্তিকের শুরুতেই গাছের পরিচর্যা। এরপর পেশাদার গাছিরা রস সংগ্রহ করবেন। আর সে খেজুর রস থেকে তৈরী করা হবে গুড় ও পাটালী। রস সংগ্রহে উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়ন সুখ্যাতি রয়েছে। এরমধ্য কাগইল, নেপালতলী, দক্ষিনপাড়া, নশিপুর ও বালিয়াদিঘী ইউনিয়নে বেশী রস উৎপাদন হয়ে থাকে। গাবতলী ছাড়াও বাইরেও রসের কদর রয়েছে। কাগইলের সাহাপুর ও সুখানপুকুরে পথে পথে রয়েছে সারিবদ্ধ খেজুর ও তালগাছ। আর মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে কৃষকের ঘরে ঘরে খেজুর রস, গুড় আর আমনধানের চাল দিয়ে নতুন পিটা, পুলি, পায়েস তৈরীর ধুম পড়ে যাবে। শীত মৌসুমে গ্রামের বধূঁরা তৈরী করবে মুড়ি মোয়া ও চিড়া। উপজেলার শতাধিক গাছি ৩মাস ব্যাপী খেজুর গাছ কেটে রস সংগ্রহে করবে। ভোর সকালে তারা রস নিয়ে মাটির পাতিল বা কলসে গ্রাম ও শহর এলাকায় বিক্রি করবেন। আর বিক্রিত টাকা দিয়ে গাছিদের চলবে পুরো পরিবার। শীত মৌসুমে রস বিক্রি হয় সবচেয়ে বেশী। গতবছরের ১গ্লাস রস ৫টাকায় বিক্রি হয়েছে। এবছরে পুরোশীতে ভাল দামে রস ও গুড় বিক্রি হবে। উপজেলার কাগইল এলাকার গাছি আজাহার আলী জানান, গাছ কাটার কাজ শেষ করেছি। এখন রস পাওয়ার আনন্দ মেতে আছি। রস থেকে তৈরী করা হবে গুড়। রস সংগ্রহে গাছের মালিক কে অংশ দেওয়ার পরেও আমরা লাভবান হতে পারবো।


Spread the love