গাইবান্ধায় শ্বশুড় বাড়ীতে এসে জামাতার অস্বাভাবিক মৃত্যু হত্যার অভিযোগ

52
Spread the love

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা : সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামের আলম মিস্ত্রির বাড়ীতে এসে জামাতা মধু মিয়ার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। এদিকে শ্বশুর বাড়ির লোকজন জামাতাকে মারপিট করে মেরে ফেলেছে বলে মধু মিয়ার বাড়ির লোকজনের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে। তবে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন ওই অভিযোগ অস্বীকার করে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগে জানা গেছে, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছাপড়হাটির মন্ডলের হাট গ্রামের মধু মিয়া তার স্ত্রী রুমি আক্তারকে শনিবার রাতে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য  আসলে সদর উপজেলার ছয়ঘড়িয়া গ্রামের শ্বশুর বাড়ীতে এলে তাকে মারপিট করা হয়। এতে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাকে গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে শ্বশুর বাড়ীর লোকজনের দাবী মধু মিয়া আগে থেকেই মৃগী রোগের রোগী ছিল। উল্লেখ্য, গত ঈদে সঠিকভাবে দাওয়াত না দেয়ার কারণে দুই পরিবারের মধ্যে মনোমালিন্যের সুত্রপাত হয়। দীর্ঘদিন পর মধু মিয়া শ্বশুর বাড়িতে না এসে বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দুরে এক আত্মীয়ের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে স্ত্রী রুমিকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার জন্য খবর পাঠায়। শ্বশুর লোকজন বুঝিয়ে শুনিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পথে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। এব্যাপারে গাইবান্ধা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান জানান, নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্তের রিপোর্ট প্রাপ্তির মামলার ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। এখন সদর থানায় অস্বাভাবিক মামলা দায়ের করা হয়েছে।


Spread the love