চুনকা পাঠাগারে নাট্যকার কুতুবউদ্দিন ও খসরু’র স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

36
Spread the love

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ নাট্যাঙ্গনের দুই নক্ষত্র নাট্য ব্যাক্তিত্ব যথাক্রমে কুতুবউদ্দিন আহম্মেদ ও বীরমুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ খোরশেদ আলম খসরু স্মরণে বাংলাদেশ গ্রæপ থিয়েটার ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা আয়োজিত স্মরণসভা শুক্রবার বিকেল ৪টায় শহরের আলী আহাম্মদ চুনকা নগর মিলনায়তনের করিডোরে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ গ্রæপ থিয়েটার ফেডারেশনের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য উত্তম কুমার সাহার সভাপতিত্বে করোনা আক্রান্ত ও স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণকারী নাট্য ব্যাক্তিত্বদের প্রতি সম্মান জানিয়ে ১মিনিট নিরবতা পালণের মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়। ঐকিক থিয়েটারের সহ-সভাপতি আতিকুল ইসলাম মুন্নার সঞ্চালনায় স্মরণসভায় প্রয়াত দু’ নাট্য ব্যাক্তিত্বে জীবনী নিয়ে আলোচনা করেন জনেজনে নাট্য দলের দলপতি বাহাউদ্দিন বুলু,সিরাজউদ্দৌলা নাট্য দলের কর্ণধার মোঃ খালেকুজ্জামান মিয়া(মিয়া জামান),নাট্যালাপের দলপতি বিশ্বনাথ বিশ্বাস,উম্মেষ সাংস্কৃতিক সংসদের সভাপতি এড.প্রদীপ ঘোষ বাবু,বন্দর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ সেন্টু,মঞ্চ শিল্পী সংগঠক কাজী বদরুল ইসলাম খোকন ও ইউসূফ মেম্বার। এ সময় ছিলেন সিরাজউদ্দৌলা নাট্যদলের সদস্য সারোয়ার খান,বিমল চন্দ্র ঘোষসহ আরো অন্যান্য নাট্যকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। স্মরনসভায় বক্তারা বলেন,নাট্যশিল্পীরা কর্মের মাঝেই বেঁচে থাকে। তাদের অর্জণ সম্মান। সম্মান ছাড়া এ জগতের মানুষগুলো আর কিছুই আসা করেনা। কেবল মৃত্যুর পর স্মরণ নয় জীবিত থাকাবস্থায় নাট্যকর্মীরা সম্মান পায় সেই ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। জীবদ্দশায় কে কেমন আছে প্রত্যেকেই প্রত্যেকের খোঁজ নেয়া উচিত। উল্লেখ্য,জীবদ্দশায় মরহুম কুতুবউদ্দিন আহম্মেদ বাংলাদেশ চলচ্চিত্রে,বেতার ও মঞ্চে প্রায় আড়াই শতাধিক ছবি ও নাটকে অভিনয় করেছেন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র অবিচার,পদ্মা নদীর মাঝি বড় ভাল লোক ছিল। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সে গ্রæপ থিয়েটার ফেডারেশ কর্তৃক সম্মামনা পদক(২০০৪ সাল) ও নারায়ণগঞ্জ থিয়েটার পদক(২০০৮ সাল) লাভ করেন। অপরদিকে সৈয়দ খোরশেদ আলম খসরু সিরাজউদ্দৌলা নাট্যদলের দলপতিসহ বিভিন্ন সময়ে ভারত ও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অসংখ্য নাটকে অভিনয়সহ পরিচালনা করেছেন।


Spread the love