তামিমের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহ বাংলাদেশের

95
Spread the love

ftgক্রীড়া ডেস্ক : ধর্মশালায় বৃষ্টি বাধা উপেক্ষা করে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় মাঠে গড়ায় বাংলাদেশ ও ওমানের মধ্যকার ম্যাচ। ব্যাট হাতে দারুণ নৈপুণ্য দেখান তামিম ইকবাল। তুলে নেন টি২০ ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। তার অসাধারণ কীর্তিতে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ওমানের বিপক্ষে ২ উইকেটে ১৮০ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। জয়ের জন্য ওমানকে ১৮১ রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুড়ে দিয়েছে মাশরাফির দল। রোববার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট এসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস নামক ভাগ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ওমানের অধিনায়ক সুলতান আহমেদ। টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তাই টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। বাঁচা-মরার ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে সাবধানেই পা ফেলে বাংলাদেশ। টাইগারদের শুরুটা ছিল ধীর গতির। প্রথম ৬ ওভারে মাত্র ২৯ রান দলের স্কোরশিটে যোগ করেন সৌম্য সরকার ও তামিম ইকবাল। পরের ওভারেই অবশ্য সাজঘরের পথ ধরেন সৌম্য। ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে গিয়ে বলের লাইন মিস হয় তার। দলীয় ৪২ রানের মাথায় অজয় লালচেতার শিকারে পরিণত হন সৌম্য। ২২ বল খেলে ২টি চারে করেছেন মোটে ১২ রান। স্ট্রাইক রেট ৫৪.৫৪! টি২০ ক্রিকেটে বড্ড বেমানানই বটে। এদিকে তামিম ইকবাল বোঝালেন ফর্ম কাকে বলে? দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ছুটছে রানের ফোয়ারা। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে সেই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছেন বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার। বাছাইপর্বের ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে ফিফটি আদায় করে নিলেন তিনি। ম্যাচের ১৩তম ওভারে ওমানের বোলার আমির আলির বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৩৫ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন তামিম। ফিফটি করার পথে ৭টি চার ও একটি ছক্কা মারেন তিনি। এটা তামিমের টি-২০ ক্যারিয়ারের পঞ্চম ফিফটি। এর আগের ম্যাচেই অবশ্য ফিফটি করতে পারতেন তামিম। কিন্তু ২৬ বলে ৪৭ রান করে আউট হন তিনি।সাজঘরে ফেরেন ৩ রানের আক্ষেপ নিয়ে। পরের ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে সেই আক্ষেপ ঘোঁচালেন বাংলাদেশের সেরা এই ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ওমানের বোলারদের কাছে হার মানেননি তামিম। সাব্বির রহমান রুম্মানও বেশ ভালোই খেলছিলেন। কিন্তু আনোয়ার আলির সেটা সহ্য হলো না! ওমানের বোলারের রহস্যময় ডেলিভারিতে কুপোকাত হলেন সাব্বির। তার আগে আম্পায়ার চেক করছেন, নো বল হয়নি। বল ঘুরে গিয়ে লাগে স্টাম্পে। অনেক ক্ষণ বেলটা পড়েনি। শেষ পর্যন্ত আউট হলেন সাব্বির। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১৬ ওভারে ২ উইকেটে ১৩৯ রান।
প্রসঙ্গত, নির্ধারিত সময়ে টস হলেও বৃষ্টির সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এই ম্যাচটি দুই দলের কাছেই গুরুত্বপূর্ণ। আজ হেরে গেলেই বিদায় নিতে হবে যে কোনো এক দলকে। তবে বৃষ্টির কাছে হেরে গেলে বিদায় নিতে হবে ওমানকে। নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় বাংলাদেশ চলে যাবে ‘আসল’ বিশ্বকাপে। বর্তমানে বাংলাদেশ ও ওমান দু’দলেরই পয়েন্ট সমান, তিন। তাই মূলপর্বে যেতে হলে জয়ের বিকল্প নেই। দুই দলই চাইবে, এমন অবস্থায় খেলে ম্যাচটি জিতে নিতে। বাংলাদেশের সামনে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই মূলপর্বে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এর জন্য এই ম্যাচে নিজেদের সেরাটা ঢেলে দিতে হবে মাশরাফি-তামিমদের। নিয়মিত একাদশে রয়েছেন বোলিং অ্যাকশনে সন্দেহের কবলে পড়া তাসকিন আহমেদ। রয়েছেন আবু হায়দার রনিও।  তবে আরাফাত সানি রয়েছেন একাদশের বাইরে। বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান রুম্মান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিঠুন, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), আল-আমিন হোসেন, আবু হায়দার রনি ও তাসকিন আহমেদ। ওমানের একাদশ: জিসান মাকসুদ, খাওয়ার আলি, যতীন্দর সিং, আদনান ইলিয়াস, আমির কালিম, সুলতান আহমেদ (অধিনায়ক), মেহরান খান, আমির আলি, অজয় লালচেতা, মুনিশ আনসারী ও বিলাল খান।


Spread the love