তাহিরপুর সীমান্তে পাথর উত্তোলন নিয়ে চোরাচালানীদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১৫

63
Spread the love

তাহিরপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে চুনাপাথর ও বল্ডার মরাপাথর উত্তোলনকে কেন্দ্র করে চোরাচালানী দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ১৫জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে গুরুতর আহতরা হলেন,আসাদ মিয়া(২৬),জাকির মিয়া(২৯),দিন ইসলাম(২৩),আব্দুর রহিম(৩৮),রফিক মিয়া(৩৫),সাত্তার মিয়া(৪০)। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়,কোটিকোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে প্রতি ট্রলি চুনাপাথর ও বল্ডার মরা পাথর থেকে টেকেরঘাট ও বালিয়াঘাট বিজিবি ক্যাম্পের নামে ১৬০টাকা করে চাঁদা নিয়ে বিজিবির সোর্স জিয়াউর রহমান জিয়া,ইদ্রিস আলী,আব্দুল হাকিম ভান্ডারী ও সোনালী মিয়া প্রতিদিনের মতো গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার টেকেরঘাট কোম্পানীর বালিয়াঘাট সীমান্তের লাকমা ছড়া দিয়ে চোরাচালানীদের ভারতে পাঠায় বল্ডার মরা পাথর ও চুনাপাথর পাচাঁর করার জন্য। ভারত-বাংলাদেশ এর জিরো থেকে ১৫০গজ দূরে উভয় দেশের লোকজন অবস্থান করার নিয়ম থাকলেও জিরো পয়েন্ট অতিক্রম করে ভারতের ভিতরে গিয়ে পাথর উত্তোলন করা নিয়ে লাকমা গ্রামের চোরাচালানী দিন ইসলাম ও জাকির মিয়ার মধ্যে কথা কাটাকাটি এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয়। তারই জের ধরে দুইপক্ষের লোকজন লাটি-সুটা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় আধা ঘন্টাব্যাপী এই সংঘর্ষের ঘটনায় ইট-পাথর নিক্ষেপে উভয়পক্ষের ১৫জন আহত হয়। এব্যাপারে টেকেরঘাট কোম্পানীর দায়িত্বে থাকা কোম্পানী কমান্ডার রশিদ বলেন,আমি জরুরী কাজে বাহিরে,তাই এবিয়য়ে এখনও খবর পাইনি। তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বলেন,এব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য,চাঁদার টাকা নিয়ে সম্প্রতি টেকেরঘাট সীমান্তের বুরুঙ্গাছড়া এলাকায় টেকেরঘাট বিজিবি ক্যম্পের ১জন সৈনিকের হাত ফাটিয়ে দিয়েছে চোরাচালানীরা ও চাঁরাগাঁও সীমান্তের জঙ্গলবাড়ি এলাকায় এক সৈনিককে পিটিয়ে আহত করেছে। তারপরও চোরাচালান বন্ধ করেনি বিজিবি এবং কোন আইনগত ব্যবস্থা নেয়নি।


Spread the love