দিনাজপুরে জমির আইলে রোপণ করা হচ্ছে ইউক্যালিপটাস গাছ

104
Spread the love

image_2080_262920দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে কৃষি জমির আইলে কিংবা পাশে কৃষকরা না বুঝেই রোপণ করছেন দ্রুত বর্ধনশীল ইউক্যালিপটাস গাছ। যার প্রভাব পড়ছে কৃষি জমির উপর। ফুলবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমির আইলে কিংবা পাশে, বাড়ির আঙ্গিনায়, রাস্তার ধারে ইউক্যালিপটাস গাছের চারা লাগানো ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশের জলবায়ু, মাটি ও কৃষি জমিসহ পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর দ্রুত বর্ধনশীল এই ইউক্যালিপটাস গাছ। তাই পরিবেশের ক্ষতি করে এমন গাছ না লাগানোর পরামর্শ দিয়ে আসছেন পরিবেশবিদরা। তারা বলেন, এটি দেশিয় কোনো গাছ নয়, এর আদিবাস অস্ট্রেলিয়ার। আমাদের দেশের মাটি ও পরিবেশের জন্য একেবারেই উপযোগী নয় গাছটি। বরং অন্য গাছের স্বাভাবিক বৃদ্ধিতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে এ গাছ। এ গাছের ক্ষতিকারক দিকগুলো হলো এটি মাটি থেকে বেশি পরিমাণ রস ও খাদ্য শোষণ করে থাকে, ফলে পানির স্তর অনেক নিচে নেমে যায়। যেসব এলাকায় ইউক্যালিপটাস গাছ রয়েছে সেখানে পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার পাশাপাশি কমে যাচ্ছে মাটির উর্বরতা। আবার এ গাছের পাতা সহজে পচেনা, ফলে যে জায়গায় পাতা ঝরে পড়ে সেখানে ফসলের বৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হয়। মানুষের বেঁচে থাকতে হলে পরিবেশ সহায়ক গাছের প্রয়োজন অপরিহার্য। করিগুরু তার বৃক্ষ বন্দনায় যেমনটি লিখেছেন- অন্ধ ভূমিগর্ভ হতে শুনেছিরে সূর্যের আহ্বান, প্রাণের প্রথম জাগরণে, তুমি বৃক্ষ আদিপ্রান…।


Spread the love