দিনাজপুরে পাঁচ উপজেলায় ২০ গ্রামে ঈদ পালন

98
Spread the love

unnamedতারিক আবেদীন (দিনাজপুর) : সৌদিআরবের সাথে মিল রেখে দিনাজপুরে ৫টি উপজেলার প্রায় ২০টি গ্রামের  মানুষ ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেছেন। জানা গেছে, দিনাজপুর সদর, বিরল, চিরিরবন্দর, কাহারোল ও খানসামা উপজেলার ২০টি গ্রামের ৭/৮শ’ পরিবারের প্রায় হাজার মানুষ ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় দিনাজপুর শহরের স্টেশন রোডস্থ ডেফোডিল কমিউনিটি সেন্টারে ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন শহর ও আশপাশের কয়েকটি এলাকার প্রায় ২ শতাধিক পুরম্নষ-মহিলা ও শিশু। এ জামাতে ইমামতি করেন শাইখ মতিউর রহমান দিনাজপুরী। দিনাজুপর শহরের লালবাগ, চাউলিয়াপট্টি, রামনগর, সদর উপজেলার নয়নপুর, গোপালগঞ্জসহ কয়েকটি এলাকার মুসলিস্নরা এই ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করেন। এছাড়া জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা রাবার ড্যাম গ্রামে, ফতেহ জংপুর, কাহারোল উপজেলার মুকন্দপুর, গড়েয়া, ভবানীপুর, বিরল উপজেলার বালান্দর, পাঁচপাড়া. মাদববাটি, খানসামা উপজেলার পাকেরহাট গ্রামসহ জেলার ৫টি উপজেলার প্রায় ২০টি গ্রামের মানুষ বৃহস্পতিবার ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেছেন। সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে চিরিরবন্দরের রাবার ড্যাম এলাকায়। দ্বিতীয় ঈদের জামাত দিনাজপুর শহরের ডেফোডিল কমিউনিটি সেন্টারে। নামাজ শেষে মুসলিস্নদির উদ্দেশে খুৎবায় একই দিনে ঈদ ও কুরবানী করার যৌক্তিকতা তুলে ধরে সবাইকে একই দিনে ঈদ ও কুরবানী করার আহবান জানান ইমামগন। পরে তারা পশু কুরবানী করেন। আগাম ঈদ পালনকারী মুসলিস্ন রানীরবন্দর নশরতপুর এলাকার ইশবউদ্দিন জানান, সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে সারা বিশ্বে একই দিনে ঈদুল আযহা উদযাপন করা উচিত। সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সময়ের ব্যবধান খুবই অল্প। তারা যুক্তি উপস্থাপন করেন জুমার নামাজ সৌদি আরব ও বাংলাদেশে একই দিনে হলে ঈদ আয়োজন কেন একই দিনে হবে না। তারা সকলকে সৌদি আরবের সাথে ঈদ উদযাপনের আহবান জানিয়েছেন। মুসলিস্নরা একই দিনে ঈদ ও কুরবানীর যৌক্তিকাতা তুলে সরকারকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানান। একই কথা বললেন হোসেন আলী। তিনি জানান, সৌদি আরবে আজ বৃহস্পতিবার ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হচ্ছে তাই এখানে ঈদের জামাত আজ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই এলাকার লোকজন বাংলাদেশে যেদিন ঈদ হবে তার আগের দিন ঈদ পালন করে। তিনি জানান, এলাকাবাসী শুনেছে বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে ঈদ। তাই এখানেও বৃহস্পতিবার ঈদ পালন করেছেন। তারা একদিন আগে আজ বৃহস্পতিবার কুরবানী করেন। এদিকে সৌদিআরবের সাথে মিল রেখে ঈদ পালন করা ভিত্তিহীন বলে দাবী করেছেন আলেম সমাজ। তারা সকলকে মিলেমিশে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করার আহ্বান জানান।

 


Spread the love