দিনাজপুরে সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

68
Spread the love

bd fদিনাজপুর প্রতিনিধি : ‘দুর্যোগ-দুর্ঘটনার ঝুঁকি হ্রাসে প্রয়োজন, জনসচেতনতা ও প্রশিক্ষণ’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দিনাজপুরে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ-২০১৫ পালিত হয়েছে।
এ উপলক্ষে সোমবার (১৬ নভেম্বর) সকালে দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিস প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মো. লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলাম রাব্বি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, জেলা সিনিয়র তথ্য অফিসার আবুল কালাম মোহাম্মদ শামসুদ্দিন, দিনাজপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আনোয়ারুল ইসলাম। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. মেহেরুল্লাাহ বাদল। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. জাকির হোসেন ও অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন স্টেশন অফিসার মো. সিরাজুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ফায়ার সার্ভিসের কাজ শুধু আগুন নিভানো নয়। ফায়ার সার্ভিস একটি বেসামরিক প্রতিরক্ষা সংস্থা। এ সংস্থার সদস্যরা বিপন্ন মানুষের সেবায় কাজ করে। প্রশিক্ষিত জনবল বৃদ্ধি করতে এ সংস্থাকে সরকারী-বেসরকারী অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।  বক্তারা দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস অফিস কম্পাউন্ডে অবস্থিত পুকুরটি সংস্কার করা ও উঁচু ভবনে আগুন নিভানোর জন্য দিনাজপুর অফিসে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরবরাহের দাবী জানান। পাশাপাশি ভবন কোড মেনে বাসা-বাড়ী ও ভবন নির্মাণের জন্য সর্ব সাধারণের প্রতি আহবান জানান বক্তারা।  স্বাগত বক্তব্যে দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. জাকির হোসেন বলেন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের অধীন একটি সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। অগ্নি দুর্ঘটনাসহ যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রথম সাড়াদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে এ সংস্থার কর্মীরা ২৪ ঘন্টা নিয়োজিত। তিনি বলেন, বর্তমানে সারা দেশে ফায়ার স্টেশনের সংখ্যা ২৯১টি এবং কর্মরত কর্মীর সংখ্যা প্রায় ৮ হাজার। বর্তমান সরকারের আমলে ৮০টি ফায়ার স্টেশন নির্মিত হয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী ৪টি প্রকল্পের অধীনে দেশের প্রতিটি উপজেলায় ন্যুনতম একটি ফায়ার স্টেশন স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ফায়ার স্টেশনের সংখ্যা হবে ৫৪৯টি এবং জনবল বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় দ্বিগুন হবে। আলোচনা সভা শেষে ফায়ার সার্ভিসের দক্ষ সদস্যরা একটি দৃষ্টিনন্দন মহড়া প্রদর্শন করে।
উল্লেখ্য, দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলার মধ্যে ৬টি উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন চালু রয়েছে, ১টি উপজেলায় চালুর অপেক্ষায় ও বাকী ৬টি উপজেলায় ফায়ার স্টেশন নির্মাধীন রয়েছে।


Spread the love