দিনাজপুর ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা

72
Spread the love

bd sদিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের মানুষ লেখাপড়ায় অলস ও অসচেতন এ কথা উল্লেখ করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুর এর চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমদ হোসেন বলেছেন, রংপুরের অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের লেখাপড়ার ক্ষেত্রে খুব সচেতন ও পরিশ্রমি। তাই তারা লেখাপড়ায় আমাদের দিনাজপুর জেলার থেকে এগিয়ে রয়েছে। সে জন্য লেখাপড়ায় আমাদেরও আরো সচেতন ও পরিশ্রমি হতে হবে। ২২ নভেম্বর রোববার সকাল ১১ টায় দিনাজপুর ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজ এর ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে স্কুলের মাঠে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধান অতিথি তার ১৯ মিনিট ২১ সেকেন্ড দেয়া বক্তৃতায় আরো বলেন, উন্নত শিক্ষায় শিক্ষিত করে সন্তানকে গড়ে তুলে তাকে একটি সম্পদে পরিনত করতে হবে। আর সে সম্পদে পরিনত হলে এলাকায় উন্নয়ন হবে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে লক্ষ্য ভিশন ২০২১ সেটিকে বাস্তবে রুপ দিতে সহায়ক হবে। ধনী তারাই যারা তাদের নিজ সন্তানকে ভলো শিক্ষায় শিক্ষিত করেছে বা ভবিষ্যতে করবে। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান আরো বলেন, দিনাজপুরকে শিক্ষা নগরীতে পরিনত করতে আমার আন্তরিকতার কোন অভাব নেই। প্রধান অতিথি শিক্ষকদের উদ্দেশ্য করে বলেন,  ছাত্র-ছাত্রীদের ঠিক মত নিয়ন্ত্রন করে উন্নত শিক্ষাদানের মাধ্যমে ভালো শিক্ষার্থী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা বাড়বে। ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুর এর উপ-পরিদর্শক মো. আলতাফ হোসেন, সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কন্দর্প নারায়ন রায়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা মমিনুল ইসলাম, স্কুল এন্ড কলেজ শিক্ষক মো. ফারুক, সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা শওকত আলী, সোবহানিয়া লাইব্রেরীর সত্বাধিকারী আলহাজ্ব সিরাজ উদ্দিন, পল্লী ও দারিদ্র বিমোচনের ইরফান আলী। ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজের সিনিয়র শিক্ষক মোছা. গারমিন সুলতানা’র সঞ্চালনায় আলোচনা সভা শেষে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষ করা হয়।


Spread the love