দেশের ১০টি কলেজকে বাস হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী

69
Spread the love

vftনিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষার্থীদের যাতায়াত সমস্যা দূর করতে দেশের ১০টি কলেজের কাছে ১০টি বাস হস্তান্তর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ বিকেলে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে এক অনুষ্ঠানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষদের কাছে বাসের চাবি হস্তান্তর করেন। কলেজগুলো হলো রংপুর সরকারি কলেজ, দিনাজপুর সরকারি কলেজ, সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ,গোপালগঞ্জ, সাভার ক্যান্টমেন্টে প্রয়াস বিশেষায়িত স্কুল,নেত্রকোনা সরকারি কলেজ, রাঙ্গামাটি সরকারি কলেজ, সরকারি বাংলা কলেজ, ঢাকা, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ, যশোর সরকারি এমএম কলেজ এবং কক্সবাজার সরকারি কলেজ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্কুল বাস দান করার জন্য ধনী ব্যক্তিদের প্রতি সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে ইফাদ গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইফাদ অটোস লিমিটেড এবং ভারতের অশোক লেল্যান্ড কোম্পানি এই বাসগুলো দান করেছে। তিনি বলেন, ‘এই সমস্যার সমাধানে যদি ধনী ব্যক্তিরা এগিয়ে আসে, যে সব স্কুল ও কলেজের বাস নেই, তাদের বাস সরবরাহ করা হয় তাহলে শিক্ষার্থীদের যাতায়াত সমস্যার সমাধান হবে। এ জন্যই আমি ধনী ব্যক্তিদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাস দান করার আহ্বান জানিয়েছি।’ প্রয়াস বিশেষায়িত স্কুলে বাস দানের জন্য বাছাই করা প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশুদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে তাঁর সরকারের বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে। ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাস দান করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ইফাদ অটোস লিমিটেডকে ধন্যবাদ জানান এবং আশা প্রকাশ করেন, অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এক্ষেত্রে এগিয়ে আসবে। এর আগে ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু আনুষ্ঠানিকভাবে বাসের ডামি চাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন। প্রতিটি বাসে ৩৬টি আসন রয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক, মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, ইফাদ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভির আহমেদ, ইফাদ অটোস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন আহমেদ এবং পরিচালক তাসকিন আহমেদ অন্যান্যের মধ্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসেন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে ইফাদ গ্রুপ চেয়ারম্যান প্রয়াস বিশেষায়িত স্কুলের জন্য আরেকটি বাস দানের ঘোষণা দেন।


Spread the love