দেশ ও মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে —ড. আহমদ আল কবির

67
Spread the love

Shimantik Pic 2-10-15সিলেট প্রতিধিনি : আন্তর্জাতিক মানবসম্পদ উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ, সীমান্তিকের প্রতিষ্ঠাতা ও চীফ পেট্রোন বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আহমদ আল কবির বলেছেন, দেশ ও মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে। নারীদের ক্ষমতায়ন ও যুব সমাজের বেকারত্ব দূর করে দিলে এ দেশকে শিগগিরই একটি মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। সীমান্তিক সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে। নতুন প্রজন্মদের কর্মমুখী শিক্ষার দিকে উদ্ভুদ্ধ করছে সীমান্তিক। তিনি বলেন, চাকরি নয় সেবার মানসিকতা নিয়ে সীমান্তিকের কর্মীদের কাজ করতে হবে। জাতীয় উন্নয়ন সংস্থা সীমান্তিকের ৩৬তম বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গতকাল শুক্রবার বিকেলে সিলেট নগরীর সীমান্তিক কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সীমান্তিকের চেয়ারপার্সন অধ্যক্ষ মাজেদ আহমদ। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন মহাসচিব আব্দুল কুদ্দুস। শোক প্রস্তাব পাঠ করেন সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ। সংস্থার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন নির্বাহী পরিচালক কাজী মুকসেদুর রহমান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আরটিএম ইন্টারন্যাশনালের নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ জগলুল পাশা, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাকিম হায়দার, সীমান্তিকের উপদেষ্টা মালেক আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান আবু জাফর মো. রায়হান, পরিচালক (প্রোগ্রাম) কাজী হুমায়ুন কবির, পরিচালক (ট্রেনিং) পারভেজ আলম, পরিচালক (শিক্ষা) মো. আব্দুর রউফ তাফাদার. সীমান্তিকের সাবেক চেয়ারম্যান শফিকুল হক তাফাদার ও আব্দুল আহাদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন চেয়ারপার্সন অধ্যক্ষ মাজেদ আহমদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সীমান্তিকের ঢাকা আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি ড. আহমদ আলী ওয়ালী, শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মোহাম্মদ হাসান রবি, ডেভেলাপমেন্ট মিডওয়াইফারি প্রোগ্রামের প্রকল্প সমন্বয়কারী ডা. রুহুল আমীন শিকদার, তামাকমুক্ত সিলেট প্রকল্পের সমন্বয়কারী মাসুম বিল্লাহ চৌধুরী, মার্কেটিং ইনোভেশন ফর হেলথ নতুন দিন প্রকল্পের সমন্বয়কারী এমদাদ হোসেন প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সীমান্তিক পুরো বাংলাদেশে যে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করেছে, তা নজির হয়ে থাকবে। কর্মক্ষেত্রে নতুনদের এগিয়ে আনার আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন, সীমান্তবর্তী একটি গ্রাম থেকে শুরু করে সীমান্তিক আজ বিশ^ জয় করছে। সকলের সহযোগিতা থাকলে এ সংস্থা আরও এগিয়ে যাবে।


Spread the love