পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে চরম দুর্ভোগে রোগীরা, যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসক সংকট

78
Spread the love

2157মো: ইমরান আলী,পঞ্চগড় : জেলার রোগীদের একমাত্র ভরসা আধুনিক সদর হাসপাতাল পঞ্চগড়। সীমান্তবর্তী এই জেলার জনসংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ। বিভাগীয় শহর রংপুর থেকে পঞ্চগড়ের দুরত্ব প্রায় ২শ কি.মি.। পাশের জেলায় কোনো মেডিকেল কলেজ নেই। কিন্তু জরাজীর্ণ ভবনে নোংরা বেডে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের। এ ছাড়া চিকিৎসক সংকট চরম আকার ধারণ করেছে। প্রতিদিনই গড়ে হাসপাতালটির বহির্বিভাগে ৪শ রোগী চিকিৎসাসেবা নিতে আসে। অন্যদিকে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয় গড়ে প্রায় ১০০ জন। আবাসিক চিকিৎসাসেবা নেয় গড়ে ১২০ জন। কিন্তু আসন সংখ্যা ১শ। চিকিৎসকের পদ আছে ৩৬টি, চিকিৎসক আছেন মাত্র ৮ জন। পুরুষ ও নারী সেবিকার পদ আছে ৪২টি কিন্তু আছে ৩৫ জন। মেডিকেল কলেজ নিয়ম অনুযায়ী একটি অপারেশন থিয়েটার পরিচালনা করার জন্য একজন অধ্যাপকের নেতৃত্বে ৭ জন চিকিৎসক অপারেশন কার্যক্রম পরিচালনা করেন। কিন্তু পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে জুনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি ডা. মো. আমির হোসেন, জুনিয়র কনসালট্যান্ট এনেস্থেসিয়া ডা. মো. মনসুর আলম, মেডিকেল অফিসার (গাইনি অবস) ডা. খ ম আরিফুর রহমান হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারের ভরসা। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডাক্তার থাকলেও প্রায় অর্ধযুগ ধরে আলট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি অকেজো। নেই ডিজিটাল এক্সরে মেশিন। হাসপাতালের চিকিৎসা যন্ত্রপাতিগুলো অকেজো হওয়ার কারণে বেসরকারি ক্লিনিকগুলোর ব্যবসা জমজমাট। যে যার ইচ্ছেমতো চিকিৎসা ফি নিচ্ছেন। সেই কারণে দরিদ্র মানুষকে পড়তে হয় বিপদে। আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এস আই এম রাজিউল করিম বলেন, প্রয়োজনীয় চিকিৎসক ও যন্ত্রপাতি পেলে সাধারণ মানুষকে আরো বেশি চিকিৎসাসেবা দেয়া সম্ভব হতো।


Spread the love