প্রধানমন্ত্রী আজ বগুড়া আসছেন

94
Spread the love

sakস্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী আজ বগুড়া আসছেন। তার আগমন উপলক্ষে নেয়া সকল প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। বগুড়ার মানুষ তার আগমনের এখন অপেক্ষার প্রহর গুণছেন। দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর শেখ হাসিনার বগুড়ায় এটা প্রথম সফর। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন একে ঐতিহাসিক উৃল্লেখ করে বলেছেন, এতোদিন রাজনৈতিকভাবে বগুড়াকে যেভাবে চিহ্নি?ত করা হচ্ছিল, তা যে পাল্টে গেছে, এই জনসভার মাধ্যমেই তার প্রমাণ হবে। তিনি বলেন এই জনসভায় দুই থেকে আড়াই লাখ মানুষ অংশ নেবে। যেহেতু সভাস্থল আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে এতো বিপুল সংখ্যক মানুষের স্থান সংকুলান হবে না, তাই বিভিন্ন স্থানে প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।
প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার পাশাপাশি ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা চলছে, রাজনৈতিকভাবে অনেকটাই পাল্টে যাওয়া বগুড়ার মানুষের আশা আকাঙ্ক্ষার কতটুকু প্রতিফলন ঘটবে প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে। যদিও এই সভাস্থল থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ প্রায় ৭৬৭ কোটি ৬৯ লাখ ২৭ হাজার টাকা ব্যয়ে ৩৪টি প্রকল্পের উদ্বোধন আর ভিত্তি ফলক উন্মোচন করবেন। এর মধ্যে ১৯টি প্রকল্প উদ্বোধন এবং ১৫টির ভিত্তি ফলক উন্মোচন করবেন। যে ১৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হবে সেগুলো বাস্তবায়নে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৩৪৬ কোটি ১৮ লাখ টাকা। আর যে ১৫টি প্রকল্পের ভিত্তি ফলক উন্মোচন করা হবে তাতে ব্যয় হবে ৪২১ কোটি ৫১ লাখ টাকা। জনসভাস্থলে স্থাপিত ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক বোর্ডের মাধ্যমে এসব প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ভিত্তি ফলক উন্মোচন করবেন। এ ছাড়া এই জনসভা থেকে বগুড়ার ইতিহাসে আওয়ামীলীগ সরকারের সবচেয়ে বড় উন্নয়নমুলক কর্মসূচি ঘোষণাও আসতে পারে এমনটি প্রত্যাশা বগুড়ার জনগনের।
সকাল ১০টায় হেলিকপ্টার যোগে বগুড়া সেনানিবাসে পেঁৗছবেন এবং সেনাবাহিনী আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ১২ ল্যান্সারকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড (জাতীয় পতাকা) প্রদান করবেন। এরপর বেলা আড়াইটায় তিনি স্থানীয় আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন। জনসভা শেষে বিকেল সোয়া ৪টায় তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে বগুড়া ত্যাগ করবেন।
দীর্ঘ ৭ বছর পর বগুড়া সফরে আসা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বগুড়াবাসীর প্রত্যাশা অনেক। তাই এসব প্রত্যাশার যথার্থতা তুলে ধরে গত প্রায় দু’সপ্তাহ ধরেই সর্বত্র চলছে আলাপ আলোচনা। এসব প্রত্যাশার সর্বাগ্রে রয়েছে বগুড়াকে সিটি কর্পোরেশন ঘোষণা। সরকারদলীয় নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের মানুষ এই দাবির পক্ষে জোরালো অভিমত ব্যক্ত করে বলেছেন, বগুড়াকে এগিয়ে নিতে এটা অপরিহার্য। একই সঙ্গে তারা বগুড়ায় একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, বগুড়া থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত রেললাইন স্থাপন, ইকোনোমিক জোন স্থাপন, বিসিক দ্বিতীয় শিল্পনগরী প্রতিষ্ঠা, বিমান বন্দর চালুসহ, বগুড়া শহরের অন্তত দুটি স্কুল সরকারি করণ, কাহালু উপজেলায় অবস্থিত বাংলাদেশ বেতারের সম্প্রচার কেন্দ্রটি পূর্নাঙ্গ কেন্দ্র হিসেবে চালু, করতোয়া নদীর নাব্য ফিরিয়ে আনতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ, বগুড়া প্রেসক্লাবের নিজস্ব ভবন নির্মাণে যথাযথ সহায়তা প্রদান, গ্যাস লাইন সম্প্রসারণ, মহীদ চাঁন্দু স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজনসহ একটি পূর্ণাঙ্গ ফুটবল স্টেডিয়াম স্থাপন ইত্যাদি।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমনে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে দেওয়া হয়েছে বগুড়াকে। শহরে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তায় সাড়ে ৩ হাজার পুলিশ বাহিনীর পাশাপাশি র‌্যাব ও এপিবিএন’র আরও পাঁচ শতাধিক সদস্য রয়েছেন। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে সামরে রেখে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স এখন বগুড়ায় অবস্থান করছে। সব মিলিয়ে সম্মিলিত ভাবে বগুড়ায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা কঠোর করা হয়েছে।
এই সরকারের মেয়াদে প্রথম হলেও প্রায় ৭ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বগুড়ায় আসছেন। তিনি বেলা সোয়া দুইটায় আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে জনসভায় ভাষন দিবেন। জনসভার স্থল আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠের বিভিন্ন প্রবেশ পথ ক’দিন থেকেই নিরাপত্তা বাহিনীর নিয়ন্ত্রনে। আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ সংলগ্ন বিভিন্ন বাড়ি, প্রতিষ্ঠানও নিরাপত্তা বাহিনীর নজরদারিতে রয়েছে। নিরাপত্তার খাতিরে জলেশ্বরীতলার সকল স্কুল, কোচিং সেন্টারে চলছে সাধারণ ছুটি। গত মঙ্গলবারের পর থেকে ঐসব এলাকার সকল কর্মকান্ড নিরাপত্তা বাহিনীর নজর দারিতে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আগমনে সড়কে মহাসড়কে যানজট ও ভীর এড়াতে সড়কের মাঝে দেওয়া অস্থায়ী ডিভাইডার সরিয়ে ফেলা হয়েছে। শহরের সাতমাথার ফুটপাত ও পোস্ট অফিসের সামনে থেকে ভ্রাম্যমান খাবারের দোকান সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বগুড়া জিলা স্কুল ও সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরিক্ষার কেন্দ্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার থেকে শহরের গুরুত্বপূর্ন স্থানে বেপরোয়া মোটর বাইক চালকদের থামিয়ে দেওয়া হয়েছে। রেজিস্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল আটক করে রাখা হচ্ছে। নিরাপত্তা বিঘি্নত হতে পারে এমন কিছু সন্দেহ হলেই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা কঠোর ভাবে নিয়ন্ত্রন নিয়ে তা খতিয়ে দেখছেন। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা শহরের গুরুত্বপূর্ন স্থাপনায় অবস্থান নিয়েছে। তারা আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ সংলগ্ন ভবন গুলোতে অবস্থান নিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে।
বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার জানান প্রধানমন্ত্রীর আগমন এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রায় সড়ে ৩ হাজার পুলিশ বাহিনীর সদস্যের সাথে আরও প্রায় পাঁচশ আর্মড পুলিশ বাহিনীর সদস্য এবং র‌্যাব সদস্যরা রয়েছেন। শহরে ৫ স্তরের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। র‌্যাব ১২ এর কোম্পানী কমান্ডার এএফএম আজমল হোসেন জানান সম্মিলিত স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের আলোকে শহরের বিভিন্ন স্থানে র‌্যাব সদস্য মোতায়েন রয়েছে। র‌্যাব সদস্যরা নিরাপত্তায় চেকপোস্ট করে তল্লাশি চালাচ্ছে। তারা টহল দিচ্ছে ,আবার সাদা পোশাকে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থান নিয়েছে। র‌্যাব -১২, বগুড়া কোম্পানীর সদস্যদের সাথে কাজ করতে এবং বাড়তি নিরাপত্তা দিতে বাইরে থেকে আরও সদস্য এসেছে। সম্মিলিত ভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা শক্তিশালী করা হয়েছে। তিনি জানান গত মঙ্গলবার থেকেই র‌্যাব সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।
যে সব স্থাপনা ও প্রকল্প উদ্বোধন করবেন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিকেলে বগুড়ার আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে আয়োজিত জনসভা থেকে ১৯টি স্থাপনা ও প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে নবনির্মিত ১০ তলা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন। ২৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা ব্যয়ে এ ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৪ সালের ১৪ জুন। পরে এ ভবনটি ১২ তলা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। প্রধানমন্ত্রী আরও উদ্বোধন করবেন আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, গাবতলী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র, নন্দীগ্রামের কুন্দরহাট হাইওয়ে পুলিশ আউটপোস্ট, শিবগঞ্জের আলিয়ারহাটে অবস্থিত এতিম ও প্রতিবন্ধী ছেলেমেয়েদের কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, শেরপুর রানীরহাট জিসি ভায়া পেঁচুলহাট কচুয়াবাড়ী রাস্তা উন্নয়ন, কাহালু ও নন্দীগ্রাম উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ, সারিয়াকান্দির ডুমকান্দি বেতেরকান্দি রাস্তায় মুখসহ খালের উপর ৬০মি: আরসিসি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণ, কর্নিবাড়ী-কুতুবপুর-রহদহ-কামালপুর এলাকায় যমুনা নদীর ডানতীরে ৮ কিলোমিটার বিআরই বিকল্প বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প, অন্তরপাড়া, দড়িপাড়া এবং পার্শ্ববর্তী এলাকায় যমুনা নদীর ডান তীরে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ সংরক্ষণ, শেরপুরে স্কিল্স ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট এর আওতায় কারিগরী শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন আঞ্চলিক পরিচালকের কার্যালয়, বগুড়ায় স্যানিটারি, পানি সরবরাহ ও বৈদ্যুতিকরণসহ ৬-তলা ভিত বিশিষ্ট ৩-তলা অফিস ভবন নির্মাণ কাজ, স্কিল্স ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় বগুড়া সদর ভোকেশনাল টিচার্স ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এ স্যানিটারি, পানি সরবরাহ ও বৈদ্যুতিকরণসহ ৫-তলা ভিত বিশিষ্ট ২-তলা ৪০ শয্যার ছাত্রী হোস্টেল ভবন নির্মাণ কাজ, মোকামতলা (বগুড়া-রংপুর জাতীয় মহাসড়ক)-সোনাতলা হরিখালি-হাটশেরপুর-সারিয়াকান্দি সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প, লিচুতলা-কদমতলী এবং নাংলু বালিয়াদিঘি সংযোগ সড়কসহ ধুনট-নাংলু-বাগবাড়ী-কদমতলী-গাবতলী চৌকিরঘাট সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প, সারিয়াকান্দি উপজেলা মৎস্য ভবন-কাম-ট্রেইনিং সেন্টার নির্মাণ কাজ প্রকল্প, আদমদিঘী, নন্দিগ্রাম, শিবগঞ্জ ও ধুনট উপজেলা কৃষি অফিসারের কার্যালয় ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, বগুড়া হাউজিং এষ্টেটে আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্প এবং সারিয়াকান্দিতে ৩৩/১১কেভি ১০ এমভিএ বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্র এবং ১৩.৫০ কিঃ মিঃ সোর্স লাইন প্রকল্প।
যে সব প্রকল্পের ভিত্তিফলক উন্মোচন করবেন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বগুড়ার ১৫ টি প্রকল্প ও স্থাপনার ভিত্তি ফলক উন্মোচন করবেন। এগুলোর মধ্যে রয়েছে কাহালু ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, নন্দীগ্রাম ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হোস্টেল নির্মাণ, সারিয়াকান্দির ফুলবাড়ি জিসি-কুতুবপুর জিসি রাস্তায় ৭২০০ মিঃ চেইনেজে বাঙ্গালী নদীর উপর ৩১৫ মিঃ পিসি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণ, ধুনট গোসাইবাড়ী জিসি-সোনাহাটা জিসি রাস্তায় ৭৬০০ মিঃ চেইনেজে ইছামতি নদীর উপর ৭৫ মিঃ আরপিসি গার্ডার ব্রীজ নির্মাণ, নন্দীগ্রামের পন্ডিতপুকুর জিসি-কালিগঞ্জ জিসি ভায়া মারিয়া মনিনাগ রাস্তা উন্নয়ন, সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা উপজেলার ৩৩ কিঃমিঃ রাস্তা (২০টি রাস্তা) উন্নয়ন (বিশেষ প্রকল্প), শেরপুরে আর ডিএ খামার এন্ড ল্যাব প্রকল্পের আওতায় আর ডিএ ল্যাব স্কুল এন্ড কলেজের ১০ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ, সারিয়াকান্দি উপজেলাধীন কুর্ণিবাড়ি হতে চন্দনবাইশা পর্যন্ত যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ কাজসহ বিকল্প বাঁধ নির্মাণ, সরকারি আজিজুল হক কলেজের স্যানিটারি পানি সরবরাহ ও বৈদ্যুতিকরণসহ ৫ তলা ভিত বিশিষ্ট ৪ তলা ১০০ শয্যার ছাত্রী হোস্টেল ভবন নির্মাণ, আজিজুল হক কলেজ পুরাতন ভবনে (উচ্চ মাধ্যমিক শাখা) স্যানিটারি পানি সরবরাহ ও বৈদ্যুতিকরণসহ ৫ তলা ভিত বিশিষ্ট ২ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ, শিবগঞ্জ হাবিবপুর স্কুল এন্ড কলেজ’র তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে ৪ তলা ভিতের উপর ২ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ ও বগুড়া মহিলা কলেজের ৪ তলা ভিতের উপর ২ তলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ এবং সোনাতলা ৩৩/১১কেভি ১০ এমভিএ বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্র এবং ১৮.৫০ কিঃমিঃ সোর্স লাইন নির্মাণ প্রকল্প স্থাপন। এ ছাড়াও ১ কোটি ৪৯ লাখ ২৭ হাজার টাকা ব্যয়ে বগুড়া জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তি ফলক স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী।


Spread the love