ফুলবাড়ীতে বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী নওশাদ আলম মুন্নার মৃত্যু : বিভিন্ন মহলের শোক

23
Spread the love

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌর শহরের কানাহার গ্রামের বাসীন্দা ফুলবাড়ী পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যন মরহুম নুরুল হুদার বড় ছেলে, উপজেলা ব্যাবসায়ী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান আহবায়ক, নবনির্বাচিত ফুলবাড়ী পৌরসভার মেয়র মাহমুদ আলম লিটন ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যন ও ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির বড় ভাই, ফুলবাড়ীর বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠান লাভলী ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ প্রাঃ লিঃ এর পরিচালক বিশিষ্ঠ শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী নওশাদ আলম মুন্না। হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে চিকিধীন অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার রাত ১০ টায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাযিউন)।
মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী দুই মেয়ে ও এক ছেলেসহ অসংখ্যক গুনাগ্রহী রেখে গেছেন।
সকাল সাড়ে ১০ টায় নওশাদ আলম মুন্নার মৃতদেহ তার নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসলে তাকে এক নজর দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমায়, এসময় আত্মীয় স্বজন ও শুভাকাংকি গনের কান্নার আওয়াজে ভারী হয়ে উঠে সেখান পরিবেশ, উপস্থিত সকলে অশ্রুসজল হয়ে উঠে। এসময় দিনাজপুর-৫ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মিগণ মরহুমের বাড়ীতে গিয়ে শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানায়।
এদিকে ব্যাবসায়ী নেতা নওশাদ আলম মুন্নার মৃত্যুতে পৃথক পৃথক ভাবে শোক প্রকাশ করে শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন, দিনাজপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য দিনাজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার, সাবেক সংসদ সদস্য দিনাজপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক এজেডএম রেজওয়ানুল হক, ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যন আতাউর রহমান মিল্টন, বর্তমান পৌর মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক, নবনির্বাচিত পৌর কাউন্সিলর সৈয়দ সামিউল ইসলাম সোহেলসহ বিভিন্ন রাজনৈতি ও সামাজি এবং পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়া ফুলবাড়ী ব্যবসায়ী সমিতি এক দিনের শোক দিবস ঘোষনা করে কেবলমাত্র নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য বেতিরেখে, ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান মীল কলকারখানা বন্ধ ঘোষনা করেন।
শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় পৌরশহরের কানাহার পারিবারিক কবরস্থানে তার নামাজে জানাজা ও তার মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়। তার নামাজে জানাজায় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার সহস্রাধিক মানুষ অংশগ্রহন করেন।


Spread the love