বগুড়ার,সারিয়াকান্দিতে, ফ্লাইয়িং ডিউটি পালন করলেন-সাজু ।

302
Spread the love

Sazuতাজউদ্দিন আহমেদ (তাজুল) সারিয়াকান্দি,বগুড়া : আর্ন্তজাতিক জ্ঞানে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের ক্লাশে পাঠগ্রহণ ছাড়া জ্ঞান অর্জনের কোনো বিকল্প নেই। আার সেই ধারাবাহিকতায় কাজ করে যাচ্ছেন বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলার ১২নং ভেলাবাড়ি ইউনিয়নের অর্ন্তগত জোড়গাছা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনামুল বারী (সাজু)। তিনি প্রায়ই লক্ষ্য করেন বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ক্লাশ ফাঁকি দিয়ে পাঠগ্রহন করা থেকে বিরত থেকে ছাত্ররা বিদ্যালয়ের আশেপাশের বিভিন্ন দোকানে, ক্রেমবোডের্র কাছে ঘুরে বেড়ায় এবং ছাত্রীরা দোকানে গিয়ে কসমেটিক কেনা নিয়ে ব্যস্ত থাকে। তিনি সেইগুলো পরিহার এবং স্কুলের নিয়ম ও সুন্দর-মনোরম পরিবেশ ফিরে আনার জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। যা সমগ্র শিক্ষা ডির্পাটমেন্টে (বিভাগে) একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে। তিনি গত রবিবার ক্লাশ চলাকালিন সময়ে ঐ অবস্থা পরিলক্ষিত হলে ফ্লাইয়িং ডিউটি পালন করেছেন অর্থাৎ বিদ্যালয়ের বাহিরে উড়–য়াভাবে গিয়ে শিক্ষার্থীদেরকে মার্জিত ভাষায় বুঝিয়ে বলেন, তোমাদের ক্লাশের পাঠগ্রহণের কোনো বিকল্প নেই। যদি তাই না থাকতো, তাহলে কারো বিদ্যালয়ে আসার প্রয়োজন ছিলনা প্রত্যেকেই বাড়িতেই বই কিনে নিজে-নিজে পাঠ করে শিক্ষা লাভ করত। এজন্য তিনি প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের নিজ-নিজ ক্লাশে গিয়ে পাঠগ্রহণ করার জন্য নির্দেশদেন। এ বিষয়ে সুশীল সমাজের একজন সুশীল ব্যক্তি, আশির দশকের সাপ্তাহিক কাকনের সম্পাদক ও দৈনিক মায়ের আচঁল, উত্তরবঙ্গ নিউজ ডট কমের সারিয়াকান্দি  প্রতিনিধি তাজউদ্দিন আহমেদ (তাজুল) এর পথপ্রদর্শক জনাবঃ ডাঃ সুজাউদ্দীন (সুজা) মন্ডল এর সাথে কথা হলে, আসলেই শিক্ষার্থীদের ক্লাশে পাঠগ্রহণের কোনো বিকল্প নেই। যদি প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই প্রধান শিক্ষকরা প্রতিটি ক্লাশের সময় রোল কল করে শিক্ষার্থীর হাজিরা ব্যবস্থা করেন তাহলে বাংলাদেশে সঠিক শিক্ষা প্রদান করা সম্ভব এমনটি আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি ।


Spread the love