বগুড়ায় নিজ ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা : বাবা আটক

97
Spread the love

image_2075_262376বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার শেরপুরে নেশার টাকা না পেয়ে মাদকাসক্ত বাবা বিধান চন্দ্র সরকার রামদা দিয়ে কুপিয়ে নিজ ছেলেকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। পরে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় গ্রামবাসী আটক করে তাকে পুলিশে সোপর্দ করে। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের দারুগ্রাম বড় হিন্দুপাড়া গ্রামে এই লোমহর্ষক হত্যাকা ের ঘটনাটি ঘটে। নিহত ওই ছেলের নাম দুর্জয় কুমার সরকার (১১)। সে স্থানীয় দারুগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সরেজমিনে গেলে নিহত দুর্জয় কুমারের মা শ্রীমতি আগমনি রানী জানান, অভাবের সংসার। স্বামীও মাদকাসক্ত। পুরোটা সময়ই তিনি নেশা নিয়ে মত্ত থাকেন। সংসারে আয় বলেও কিছুই নেই। নেশা তিলে তিলে সবকিছু গ্রাস করে ফেলেছে। নেশার টাকা জোগাতে গিয়ে স্বামী বিধান চন্দ্র সরকার সামান্য জমিজমা ছিল তাও বিক্রি করে দিয়েছে। শেষমেষ সংসারের হাল ধরেন তিনি। অন্যের বাসাবাড়িতে ঝিয়ের কাজ শুরু করেন। দিন শেষে যা আসতো তাতেই চলতো তাদের সংসার। কিন্তু এখানেও স্বামী বিধানের বাধা। তার নেশার টাকা চাই। তবে একমাত্র সন্তান দুর্জয়ের ভবিষ্যৎ চিন্তায় মা আগমনী বেঁকে বসেন। স্বামীকে টাকা দেয়া বন্ধ করে দেন। কেননা ছেলে দুর্জয় স্থানীয় স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। একদিন বড় হবে। এতে সে ভীষণ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এদিকে গতকাল সকালে প্রতিদিনের ন্যায় অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করতে যান আগমনি রানী। বাড়ি ছিল ফাঁকা। এছাড়া বাইরে অঝোরে বৃষ্টি পড়ছে। এই সুযোগে মাদকাসক্ত বাবা বিধান ছেলে দুর্জয়কে কাছে ডেকে নেয়। একপর্যায়ে বাড়ির ভেতরেই রামদা দিয়ে কুপিয়ে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে বলে মা আগমনি রানী জানান।
সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার আবু তালেব জানান, মাদকাসক্ত বিধান চন্দ্র সরকারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে প্রায় মাসখানেক আগে পরিবারের লোকজন তাকে পুলিশে দিয়েছিল। কিন্তু কয়েকদিন পরই সে আবার জেল থেকে বেরিয়ে আসে এবং একই কাজ শুরু করে। এমনকি নেশার টাকা না পেয়ে স্ত্রী ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে মাদকাসক্ত বিধান তাদের একমাত্র ছেলেকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করেছে বলে এই জনপ্রতিনিধি জানান।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলী আহমেদ হাশমী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, উক্ত ঘটনায় একটি হত্যামামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ছাড়া ঘাতক বিধানকেও পুলিশ আটক করেছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।


Spread the love