বর্তমান সরকার নারী শিক্ষা প্রসারে ডিগ্রি পর্যন্ত অবৈতনিক শিক্ষা চালু করেছে … এমপি আব্দুল মান্নান

67
Spread the love

bd wসোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান বলেছেন, বর্তমান সরকার দেশে নারী শিক্ষার হার বাড়াতে ডিগ্রি পর্যন্ত অবৈতনিক শিক্ষা চালু করেছে। পাশাপাশি সরকার ভবিষ্যতে ছেলেদের অবৈতনিক শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি করবে। গতকাল শুক্রবার বগুড়ার সোনাতলা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে মা সমাবেশ ও কৃতী ছাত্রীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। আব্দুল মান্নান বলেন, এক সময় সোনাতলার মানুষ দাদন ব্যবসায়ীদের নিকট জিম্মি ছিল। আর সেই দাদন ব্যবসা পরিচালনা করতো সোনাতলার একটি পরিবার। এরা কারা। এদের চিহ্নি করতে হবে। এরা দাদনের টাকার জন্য মানুষকে ধরে এনে বাঁশঝাড়ে বেঁধে রেখে সারারাত নির্যাতনের পাশাপাশি মশা দিয়ে মানুষের রক্ত খাওয়াছে। এক সময় সোনাতলার নারীরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হতো। আমরা নারী শিক্ষা প্রসারে সোনাতলা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কলেজ, ফজিলা শরিফ দাখিল মাদ্রাসা, আয়েশা আজগর বালিকা মাদ্রাসা ও আব্দুল মান্নান বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি। সরকার শিক্ষা নীতি বাস্তবায়ন করে সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি ধর্মীয় শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়েছে। বর্তমান সরকারের শাসনামলে সোনাতলা সারিয়াকান্দির ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উন্নয়নে ২৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়ে ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়ন করা হয়েছে। এছাড়াও ১৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। অবশিষ্ট ননএমপিও প্রতিষ্ঠানগুলো পর্যায়ক্রমে এমপিওভুক্ত করা হবে। তিনি আরও বলেন, সরকার শিক্ষাবর্ষের ১ম দিবসে শিক্ষার্থীদের হাতে পাঠ্যপুস্তক তুলে দিয়ে বিশ্বের দরবারে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। তিনি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশে বলেন, বেগম জিয়া তার একটি সন্তানকেও মানুষের মতো মানুষ তৈরি করতে পারেনি। বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মামলা নয় দুর্নীতির মামলা হয়েছে। এদেশের ১৬ কোটি মানুষ আর কোনদিন খালেদা জিয়াকে ক্ষমতায় বসাবে না। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বগুড়ার জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন বলেন, শিক্ষার্থীরা রাত জেগে ইন্টারনেট ও ফেসবুক ব্যবহার করলে শ্রেণীকক্ষে পড়াশুনার আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। তাই এ সম্পর্কে অভিভাবকদের সচেতন থাকতে হবে। বগুড়ার পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বলেন, বগুড়ায় যে উন্নয়ন হয়েছে তার অর্ধেক হয়েছে সোনাতলা সারিয়াকান্দিতে। এলাকার জনপ্রতিনিধি যোগ্য ও শিক্ষিত হওয়ার ফলে এই উন্নয়ন করা সম্ভব হয়েছে। অত্র কলেজ গর্ভনিং বডির সাবেক সভাপতি সাহাদারা মান্নান শিল্পীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্যে রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, সোনাতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু জিয়াউল করিম শ্যাম্পু, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ এড. মিনহাদুজ্জামান লীটন, কলেজ গর্ভনিং বডির সভাপতি রফিকুল আলম বকুল, ড. এনামুল হক কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক, রবিউল আওয়াল বিপ্লব, বয়ড়া কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াহেদ, জাহানাবাদ আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম প্রমুখ।


Spread the love