বহুল প্রতীক্ষিত অষ্টম পে-স্কেল মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

69
Spread the love

50377_1সাথী আকতার : সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের বহুল প্রতীক্ষিত জাতীয় অষ্টম পে-স্কেলের অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে নতুন পে-স্কেল অনুমোদন দেওয়া হয়। গত ১ জুলাই থেকে এটি কার্যকর হিসেবে ধরা হবে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নতুন বেতন কাঠামো জুলাই মাস থেকেই কার্যকর হয়েছে। নতুন এ কাঠামো অনুযায়ী সর্বনিম্ন বেতন হবে ৮ হাজার ২শ এবং সর্বোচ্চ ৭৮ হাজার টাকা। গতকাল রোববার দিনভর কঠোর গোপনীয়তার মধ্য দিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন বিভাগ এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে। এদিকে দেশের লাখ লাখ সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী এ বৈঠকের দিকে তাকিয়ে ছিলেন । উল্লেখ্য, সম্প্রতি জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, সেপ্টেম্বর মাসে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পে-স্কেল মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে অনুমোদনের জন্য তোলা হবে। টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড একসঙ্গে রাখার পক্ষে নন তিনি। এর মধ্যে যেকোনো একটি বাদ দেয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, একটি সুবিধা বাদ দিয়েই চূড়ান্ত করা হয়েছে পে-স্কেল। রোববার অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পে-স্কেল নিয়ে কয়েক দফা বৈঠক করেন। জানা গেছে, নতুন বেতন কাঠামোতে যে ২০টি গ্রেড নির্ধারণ করা হয়েছিল তা বহাল থাকছে। গ্রেডের কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না। পে-কমিশন ও সচিব কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাদ দিয়েই নতুন পে-স্কেল বাস্তবায়নের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের চাপের মুখে সরকার নিজের অবস্থান থেকে কিছুটা সরে আসে। এর আগে বৈঠকে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নতুন জাতীয় বেতন স্কেলের প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও সচিবরা। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন জাতীয় বেতন স্কেলসহ অন্যান্য আলোচিত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।এর আগে গত মাসে সাংবাদিকদের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছিলেন, সেপ্টেম্বরের শুরুতে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদনের জন্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য প্রস্তাবিত নতুন বেতন কাঠামো উঠবে। অর্থমন্ত্রী জানান, নতুন বেতন কাঠামোর সঙ্গে সরকারি কর্মচারীদের দাবি অনুযায়ী সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেলের বিষয়টিও বিবেচনা করা হতে পারে।


Spread the love