বিশ্ব খাদ্য পুরস্কার নিলেন স্যার ফজলে হাসান আবেদ

285
Spread the love

43314_fস্টাফ রিপোর্টার : বিশ্ব খাদ্য পুরস্কার গ্রহণ করে তা দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত নারীদের উৎসর্গ করেছেন বাংলাদেশ রুরাল এ্যাডভান্সমেন্ট কমিটি-ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ। ব্র্যাকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গতকাল শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়ায় ফজলে হাসান আবেদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান তৃতীয় জন রুয়ান। গত জুলাই মাসেই এ পুরস্কারের জন্য আবেদের নাম ঘোষণা করেছিল ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন। ক্ষুধাপীড়িত জনগোষ্ঠীর জন্য খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি ও বণ্টনে ‘অনন্য অবদানের জন্য’ ফজলে হাসান আবেদকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে বলে ব্র্যাকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়। পুরস্কার নেওয়ার পর তিনি বলেন, “এই পুরস্কার শুধু আমার একার নয়, এই সাফল্যগাথার পেছনে প্রকৃত নায়ক দরিদ্ররাই, বিশেষ করে দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত নারীরা।” আইওয়ার গভর্নর টেরি ব্র্যানস্টাডের সভাপতিত্বে যুক্তরাষ্ট্রের কৃষিমন্ত্রী টম ভিলসেক, আইওয়া সিনেটের প্রেসিডেন্ট প্যাম ইয়োকোম, আইওয়া হাউসের স্পিকার লিন্ডা আপমায়ার, ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজের প্রেসিডেন্ট এ্যাম্বাসেডর কেনেথ কুইন ও মালাওয়ি প্রজাতন্ত্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জয়েস বান্ডা এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। মানুষের জন্য খাদ্য সহজলভ্য করতে এবং এর মান উন্নয়নে যারা কাজ করছেন, তাদের সাফল্যের স্বীকৃতি হিসাবে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশন প্রতিবছর এ পুরস্কার দেয়। ১৯৮৬ সালে নোবেলজয়ী নরম্যান বর্লুগ ‘বিশ্ব খাদ্য পুরস্কার’ প্রবর্তন করেন। এ পুরস্কারের অর্থমূল্য আড়াই লাখ ডলার। ১৯৭২ সালে মুক্তিযুদ্ধের পর যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে বিপর্যস্ত মানুষকে ত্রাণ সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ফজলে হাসান আবেদের নেতৃত্বে ব্র্যাক প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৯ সালে যুক্তরাজ্য সরকার তাকে ‘নাইট’ উপাধি দেয়। বর্তমান বিশ্বের বৃহত্তম বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক দরিদ্রদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন এবং তাদের জীবনমানে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার লক্ষে কাজ করছে। বিশ্বের সাড়ে তের কোটি মানুষ ব্র্যাকের সেবার আওতাভুক্ত। এশিয়া, আফ্রিকা ও ক্যারিবীয় অঞ্চলের ১১টি দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করছে ব্র্যাক। এ সংস্থার কাজ অন্তত ১৫ কোটি মানুষের দারিদ্র্য দূর করতে সহায়ক হয়েছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের তথ্য।

Spread the love