বীরগঞ্জে মনি স্যার ফুটবল টুনামেন্টর ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরন

99
Spread the love

birএন.আই.মিলনবীরগঞ্জ, দিনাজপুর :  দিনাজপুর বীরগঞ্জে মনি স্যার ফুটবল টুনামেন্টর ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরনী সময় কালে জনগনের রোষানলে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম।
ঘটনার বিবরণে জানা যায় গত সোমবার মনি স্যার ফুটবল টুনামেন্টর ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরনী সময় কালে খেলা শেষে বিজয়ী ও রার্নাসআপ দলকে পুরস্কার বিতরনী কালে সময় সল্পতার কারণে এবং মাগরিবের নামাজের সময় হওয়ায় অনুষ্ঠান পরিচালনা কারী কমিটির সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে বক্তব্য প্রদানের জন্য সরাসরি দিনাজপুর-১ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব মনোরঞ্জন শীল গোপালের নাম ঘোষনা করায় উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে অনুষ্ঠান পরিচালনা কারি পাবলিক লাইব্রেরীর সহ-সভাপতি ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোছাদ্দেক হোসের প্রতি চড়াও হয়ে অশোভন আচরণ করে অকথ্য ভাষায় গাল মন্দ করলে উপস্থিত জনতা আমিনুল ইসলামের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়। এসময় মাঠে চরম উত্তেজনা বিরাজ করে তাকে ধর ধর বলে গর্জে উঠে। এসময় মাননীয় জাতীয় সংসদের হস্তক্ষেপে জনতা শান্ত হলে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়। পুরস্কার বিতরনী শেষে জাতীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা চেয়ারম্যান দলীয় কার্যালয়ে আসলে নেতা কর্মী সহ উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোছাদ্দেক হোসেন উপস্থিত হয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলামকে প্রশ্ন করে বলেন যে, মাঠে তার সঙ্গে এহেন অসৌজন্য মূলক আচরণ করার কারণ কি? তিনি তার প্রশ্নের কোন উত্তর দিতে না পাড়লে দলীয় নেতা কর্মীরা তার উপর চড়াও হয় এবং তাকে মদ খোর, গাজা খোর, নারী লোভী সহ বিভিন্ন ভাষায় গাল মন্দ করতে থাকে এবং তাকে ধরতে শত শত নেতা কর্মী রাস্তায় অপেক্ষা করে। এ সময় জাতীয় সংসদ্য সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপালের হস্তক্ষেপে বীরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনের অনুরোধে নেতাকর্মীরা শান্ত হলে পুলিশি পাহারায় তাকে দলীয় কার্যালয় হতে বাসায় পৌছে দেওয়া হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলামের লাঞ্চিতর ঘটনায় উল্লাসিত হয়ে এলাকা বাসী মিষ্টি বিতরণ করে।


Spread the love