মালিকানা পুকুর নিয়ে বিরোধে নন্দীগ্রামে মৎস্য চাষিকে পিটিয়ে হত্যা : আহত ২

67
Spread the love

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে মালিকানা পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে আব্দুল ছফের(৫০) নামের এক মৎস্য চাষিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। দুপক্ষের মারপিটে আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের আশংকাজনক অবস্থায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের ধুন্দার দারোগাপাড়ার মালিকানা আম্বির পুকুর নিয়ে ওই গ্রামের মৃত নজিবর রহমানের ছেলে মৎস্য চাষি আব্দুল ছফেরের সাথে প্রায় ১০বছর ধরে একই গ্রামের মজিবর, আমজাদ, আজিবর, রুহুল আমীন ও আনোয়ারের বিরোধ হয়ে আসছিল। পুকুরের মালিকানা ও মাছ চাষ নিয়ে আদালতে উভয় পক্ষের মামলা চলমান রয়েছে। একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে মজিবরসহ তার সহযোগীরা জোরপূর্বক পুকুরে মাছ ধরার জন্য শ্যালো মেশিন ফেলে সেচ করছিল। এসময় মৎস্য চাষি আব্দুল ছফের পুকুর সেচকাজে বাঁধা দেয়। এতে মজিবরসহ তার সহযোগীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে মৎস্য চাষি আব্দুল ছফেরকে বেধরক লাঠিপেটা করে। প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে মৎস্য চাষি আব্দুল ছফের গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। আব্দুল ছফেরকে বাঁচাতে এসে প্রতিপক্ষের হামলায় তার সহদর ভাই আহম্মদ আলী(৬৫) ও ভাতিজা সোহেল রানা(২০) গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে মৎস্য চাষি আব্দুল ছফের মারা যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। থানার ওসি হাসান শামীম ইকবাল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।


Spread the love