ময়না কাটার বুকে চর পর্ব ০৪

38
Spread the love

জামাল উদ্দিন জীবন : মানিককে এদিকে আসতে দেখে ইশারা করে যেন না আসে। রাশেদা বলে তোমারা মা মেয়েতে কি করছো বাবা বাজার দিয়ে লোক পাঠিয়েছে সেই দিকে কোন খেয়াল আছে তোমাদের। বাজার না তুলতেই সোরগোল শুনা গেলো আমার ছেলেটা রে নিয়ে গেলো গো কে কোথায় আছ তারে বাঁচাও? কার বিলাপের সুর কানে ভেসে এলো? এটা করি মনের গলার আওয়াজ না ভালো করে শুনে মানিক বলে কাতরাটা দাওতো বুজান শালা গো রক্ত দিয়া আমার সাঁঝের জম ক্ষতম করবো। ভেবে ছিলো দুই /একটা হবে পরে লক্ষ করে দেখে সাত/আট টি কুমির একসাথে আছে।পানির মধ্যে ওদের রাজত্ব জোর বেশি তার একার পক্ষ্যে কোন কিছু করা সম্ভব হবে না শুধু চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া। আইন উদ্দিন মাতবর আজ দ্রুত বাড়িতে ফিরছে কালকে থানার বড়বাবু আসবে গ্রামের অনেকে থাকবে তাকেও থাকতে বলা হয়েছে ।রাতের খাবার শেষ করে হাত ধুয়ে গামছা মুছবে তখনি তুহিন এসে হাঁক ছাড়ে মাত বর সাব বাড়ি আছেন মাত বর সাব অদিতি মানিককে বলে দেখতো কে বাবাকে ডাকছে। মানিক ওপাশ হতে কেহ বাহে ডাকো কেনে? মাতবর সা বরে কও চেয়ারম্যান সাব রাস্তায় আইছে আরো অনেকে আছে তার থাকতে হইব। মানিক বলে চাচা জান চলেন চেয়ারম্যান সাব লোক জন নিয়া রাস্তায় দাড়িয়ে আছে চলো দেখি কি হলো আবার। তোমরা শুয়ে পড়ো। আরিফার স্বামী তিন দিন পরে বাড়িতে ফিরেছে। গাছের কাজ করে কাঠের বিভিন্ন জিনিস পত্র তৈরি বাঁশের জিনিস ও বিক্রি করে মহাজনের কাছ হত যা মালামাল নিয়েছে সব টাকা বুঝিয়ে দিতে হবে অনেক দিন মা মেয়ের জন্য কিছু কেনা হয় না। বউডা আমার সোনার টুকরা বেশি কিছু আবদার করে না অল্প জিনিসেই খুশি থাকে। এইতো সেই দিনের কথা সবে মাত্র বউ হইয়া বাড়িতে আইছে বাজান কয় ছোট কালে মা মরছে মুখটা ঠিক মনে নাই বয়স হইছে চোখে ঝাপসা দেখি তয় তুমি যে আমার ভাঙ্গা ঘরে আলোর বাতি সেটা বেশ বুঝতে পারতাম। মিয়া ভাই কত জায়গায় মাইয়া দেহাইলো মনে ধরে নাই শেষে আইসা মনটা বাঁধা পড়ছে বাবনা তলায় মধু গ্রামে। কিছু খাবার ও শাড়ি কিনে অকিল বাড়িতে ফিরে বড় সাধ জাগে বউডার নাম ধইরা ডাকি আবার শরম করে মুরুব্বিারা কে কি ভাবে। সাত পাঁচ ভাবতে ভাবতে ঘরের দরজায় এসে আরিফার সাথে মাথায় গুঁতা খায়। মানুষের কপালে চোখ নাই দেইখা চলতে পারে না গুঁতা খায় কেন? মাথা উঠাতেই আরিফা দেখে অকিল সামনে দাঁত দিয়ে জিহ্বায় কামুড় দিয়ে বাহিরে চলে যায় মুখটা লজ্জায় লাল টকে টকে দেখতে ঠিক পাকা মরিচের মতো লাগছে। মা মারিয়া কোথায় গেছো দেহ ঘরে তোমার বাজান আইছে। কিরনী বলে মিয়ার পো ঘরে ফিরছে কহন আই লা মিয়া।


Spread the love