যশোরে প্রক্সি দিতে এসে আটক সাত

95
Spread the love

2800যশোর অফিস : পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে আটক হয়েছে সাতজন। শনিবার বিকেলে যশোরের উপশহর মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে তাদের আটক করা হয়। এরা হলেন মণিরামপুরের পারবাজার এলাকার মোস্তাক আহমেদ, দুর্বাডাঙ্গার হাসানুজ্জামান, পরখাজুরার আসাদুজ্জামান, মোবারকপুর এলাকার মানসুর আলী, শার্শার বোয়ালিয়া গ্রামের আশরাফুল আলম, কেশবপুরের বাঘাবড়েঙ্গা গ্রামের হাসানুজ্জামান এবং সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মুড়াগাছা গ্রামের ফারহান মাহমুদ। উপশহর মহিলা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. শাহনাজ পারভীন অভিযোগ করেন, শনিবার বিকেলে ছিল ইংরেজি অনার্স দ্বিতীয়বর্ষের পরীক্ষা। এ দিন ওই সাতজন শিক্ষার্থীদের পক্ষে কলেজে আসেন পরীক্ষা দিতে। পরীক্ষা কেন্দ্রে তাদের দেয়া খাতা স্বাক্ষর করার সময় সন্দেহ হয়। এরপর পরিদর্শকরা তাদের বিভিন্ন প্রশ্ন করলে অসংলগ্ন কথাবর্তা বলেন। পরে তারা স্বীকার করেন অন্যের হয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছেন। যশোরে মণিরামপুর ও কেশবপুর অঞ্চলের পরীক্ষার্থীদের পক্ষে তারা পরীক্ষা দিতে আসেন। এ সময় আরো দুইজন অবস্থা বেগতিক দেখে পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে পালিয়ে যান। কলেজ অধ্যক্ষ হারুন অর রশীদ জানান, আটক হাসানুজ্জামান কেশবপুর কলেজের অনার্স শেষবর্ষের ছাত্র। তিনি ওই কলেজের ভুগোলের ছাত্র চঞ্চল দত্তের হয়ে পরীক্ষা দিতে আসেন। আশরাফুল আলম আসেন মণিরামপুর ডিগ্রি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞানের ছাত্র জাহিদুল ইসলামের পরীক্ষা দিতে। ফারহান মাহমুদ খুলনা বিএল কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি আসেন মণিরামপুর ডিগ্রি কলেজের এনামুল হোসেনের পক্ষে। মণিরামপুরেরে হুমায়ুন কবিরের পক্ষে আসেন এমএম কলেজের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান। আটক সাতজনকে কোতয়ালি থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।


Spread the love