যশোরে এবার হাজার কোটি টাকার আমন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা

79
Spread the love

45184_fযশোর প্রতিনিধি : যশোরের মাঠে মাঠে আমন ধান পেকে উঠেছে। পাকা ধানের সোনালী শোভায় ভরে উঠেছে চারিদিক। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় এবার বাম্পার ফলন হবে বলে কৃষি বিভাগ জানিয়েছে। কিন্তু তারপরও কৃষকের মুখে হাসি নেই। তারা আশা করছেন, এবার যশোরে এক হাজার কোটি টাকার ধান উৎপাদিত হবে। তবে এতে কৃষকের হাতে থাকবে না কিছুই। কারণ ধানের যে দাম তাতে বিক্রয় মূল্য আর উৎপাদন খরচ সমান হয়ে যাবে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যশোরের উপ-পরিচালক নিত্যরঞ্জন বিশ্বাস জানান, এ জেলায় এবার এক লাখ ২৪ হাজার ৭০০ হেক্টর (নয় লাখ ৩৫ হাজার ২৫০ বিঘা) জমিতে আমনের আবাদ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকুল থাকায় ফলনও বাম্পার হবে। কৃষকেরা জানান, আমন ফলনের দিক থেকে এবার আশাব্যঞ্জক হয়েছে। এবার বিঘায় ২০ মণের ওপরে ফলন হবে। এ হিসেবে যশোর জেলায় এক কোটি ৮৭ লাখ ৩৫ হাজার মণ (সাত লাখ ৪৯ হাজর ৪০০ টন) ধান উৎপাদন হবে। বর্তমান বাজার দর ৬০০ টাকা মণ হিসেবে এর দাম হবে এক হাজার ১২৪ কোটি টাকার বেশি। কৃষকরা জানান, উৎপাদন ভালো হলেও এবার কৃষকের হাতে কিছুই থাকবে না। কারণ বর্তমান দর হিসেবে ২০ মণ ধানের দাম ১২ হাজার টাকা। কিন্তু এই ধান চাষ করতে গিয়ে বিঘা প্রতি তাদের খরচ হয়েছে ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকা। এ অবস্থায় তাদের মধ্যে অনেকটা হতাশা দেখা দিয়েছে। কৃষকদের অভিযোগ, এ বছর টানা বৃষ্টির কারনে চাষিরা অন্যান্য ফসলে মার খেয়েছে। বিশেষ করে কয়েক দফা চাষ করে সবজিতে আর্থিকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমন ধান তাদের ভরসার ফসল ছিল। কিন্তু দর পতনের কারণে তাদের সে ভরসা নষ্ট হয়ে গেছে।

Spread the love