যশোরে চীনা নাগরিককে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যা : আটক ২ মাত্র পাঁচশ’ টাকার অতিরিক্ত বিলের জন্যে

187
Spread the love

যশোর প্রতিনিধি : যশোরের উপ-শহর এলাকায় চ্যাং হিং চং (৪৫) নামে এক চীনা নাগরিক খুন হয়েছেন। তিনি পেশায় ইজিবাইক যন্ত্রাংশের ব্যবসায়ী। টাকা পয়সা সংক্রান্ত ঘটনায় সহকারী নাজমুল হাসান পারভেজ (২৬) ও তার ভাইপো মুক্তাদির রহমান (২০) গত বুধবার রাতে তাকে রড দিয়ে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মরদেহ বস্তায় পুরে টয়লেটে রেখে পালিয়ে যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় গোডাউনের বাথরুম থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে পুলিশ উল্লি¬খিত দু’জনকে আটক করেছে। গতকাল সকালে লাশ উদ্ধারের পর যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান প্রেসব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, চীনা নাগরিক চ্যাং হিং চং যশোরে ইজিবাইকের যন্ত্রাংশের ব্যবসা করতেন। উপ-শহরে সেক্টরের একটি তিনতলা বাড়ির নীচতলায় তার গোডাউন ছিল। গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গোডাউনে চ্যাং হিং চংকে একটি বিল দিতে যায় তার সহকারী নাজমুল ও নাজমুলের ভাইপো মুক্তাদির। এ সময় বিল নিয়ে তাদের মাঝে তর্ক-বির্তক শুরু হয়। এক পর্যায়ে রড বা লোহার পাইপ জাতীয় কোনও শক্ত বস্তু দিয়ে মাথায় আঘাত ও পিটিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। এরপর তার মরদেহে উপর্যুপরি বে¬ড চালিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করা হয় ও লাশ বস্তায় ভরে টয়লেটে রেখে তারা পালিয়ে যায়। এছাড়া তার মোবাইল ফোন সেট নিজেদের কাছে অফ করে রেখে দেয়। তিনি আরো জানান, নিহতের স্ত্রী ঢাকায় থাকেন। তিনি রাতে কয়েক দফা ফোন করেও স্বামীকে না পেয়ে নাজমুলকে ফোন দেন। তখন নাজমুল জানায়, স্যারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সে সময় তার স্ত্রী বিষয়টি থানায় অবহিত করতে বলেন। পুলিশ জানায়, গভীর রাতে নাজমুল কোতোয়ালী থানায় এ বিষয়ে জানাতে গেলে পুলিশ তাকেই সন্দেহ করে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মুক্তাদিরকে আটক করা হয়। তারা পুলিশের কাছে খুনের বিষয়টি স্বীকার করে। এরপর হতভাগ্য চীনা নাগরিকের লাশ ওই গোডাউন থেকে উদ্ধার করা হয়। আটক দু’জনের বাড়ি নেত্রকোণা সদরের চকপাড়া এলাকায়। সকালে যশোরের পুলিশ সুপার, কোতোয়ালী থানার ওসি, পিবিআই এবং সিআইডি কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআইয়ের এডিশনাল এসপি আব্দুল মতিন জানান, স্বামীর কোনও খোঁজ না পেয়ে সকালের ফ্লাইটে তার স্ত্রী টেমু লাই এন যশোরে চলে আসেন। তিনি পুলিশের সহায়তায় ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এদিকে, সাংবাদিকদের সামনে ব্রিফিংকালে আটক নাজমুল ও তার ভাইপো মুক্তাদিরকে আনা হলে নিহতের স্ত্রী উত্তেজিত হয়ে পড়েন। তিনি সবার সামনেই নাজমুলকে কিল ঘুসি ও লাথি মারতে থাকেন ও তাদের ভাষায় কান্নাজড়িত কণ্ঠে ধিক্কার জানাতে থাকেন। নিহতের ড্রাইভার মামুন জানান, মাত্র পাঁচশ’ টাকার অতিরিক্ত বিলের জন্যে তাকে খুন করেছে নাজমুলরা। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্যে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে রাখা হয়েছে। বাড়ির মালিক মাসুদুর রহমান জানান, চ্যাং হিং চং গত ৭ মাস তার বাড়িতে ভাড়া রয়েছেন। এর আগে তিনি অন্য জায়গায় ছিলেন। কোতোয়ালী থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন জানান, ওই চীনা নাগরিক ২০১৪ সাল থেকে বাংলাদেশে ব্যবসা করছেন। তিনি সর্বশেষ বাংলাদেশে প্রবেশ করেন ২০১৬ সালের ২৭ নভেম্বর। সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে তার লাশ বাংলাদেশস্থ চীনা দুতাবাস কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে। যশোরে চীনের নাগরিক চেং হি সং (৪৫) হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছেন আটক নাজমুল হাসান পারভেজ ও মুক্তাদির রহমান রাজু। তারা এই খুনের পরিকল্পনাসহ ঘটনার বিস্তারিত বিবরণও দিয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (আমলী-সদর) বুলবুল ইসলাম তাদের জবানবন্দী রেকর্ড করেন। কোর্ট পরিদর্শক রেজাউল ইসলাম একথা জানান।


Spread the love