যুব বিশ্বকাপের ১৭ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে

92
Spread the love

_MG_0161 copyনিজস্ব প্রতিনিধি,কক্সবাজার : ২০১৬ সালের জানুয়ারীতে যুব বিশ্বকাপ আসরের আয়োজক বাংলাদেশ। আগামী ২০ জানুয়ারি থেকে সব দল অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশে আসছে। যুবাদের এই আসরের ১৭টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজারেই। ইতিমধ্যে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের তিন ভেন্যু, ৩৬ উইকেট ও গ্যালারী আর মাঠ তৈরীর সব কাজ শেষ। তাই শেষ মুহুর্তে গতকাল সোমবার দুপুরে প্রতিনিধি দল নিয়ে সাগর পাড়ের এ ভেন্যু পরিদর্শন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। যুব বিশ্বকাপ উপলক্ষে পরিদর্শন শেষে নাজমুল হাসান পাপন এমপি সংবাদিকদের বলেন, আগামী ২০ জানুয়ারি থেকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলা শুরু হচ্ছে। এই খেলার জন্য কক্সবাজার অত্যন্ত সুন্দর এবং যুগোপযুগী পরিবেশ। তাই অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ১৭ টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এছাড়া টানা ৫দিন দুটি মাঠে একসাথে দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। তাই দুটি মাঠ দেখে আরো ভালো লাগলো যে আলাদা ১২টি প্র্যাকটিস পিচ করা হয়েছে। ফলে এখানে বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল ও বয়স ভিত্তিক ক্রিকেট দলগুলোকে প্রশিক্ষণের জন্য পাঠানো যাবে। এই স্টেডিয়ামে সামগ্রিকভাবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে যা সফলভাবে সম্পন্ন হবে। বিসিবির সভাপতি বলেন, আইসিসি এবং সবদলের সাথে মোবাইলে মিটিং করা হয়েছে। ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলংঙ্কা সহ সব দল উপস্থিত ছিল এবং সবাই দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে বিশ্বকাপ খেলতে সব দল বাংলাদেশে আসবে। অস্ট্রেলিয়ার অংশগ্রহণ না করার প্রশ্নে তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়া আসছে না সেটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার। আইসিসি নিশ্চিত করে বলেছে বাংলাদেশে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ সুন্দরভাবে করা সম্ভব। আগামী ১০ দিনের মধ্যে স্টেডিয়ামগুলো আইসিসির কাছে হস্তান্তর করা হবে। নিরাপত্তার বিষয়ে বিসিবির সভাপতি বলেন, নিরাপত্তা ইস্যুতে বাংলাদেশে কোন ধরনের শঙ্কা নেই। নিরাপত্তা শতভাগ, তবে নিশ্চয়তা বলতে কোন কথা নেই। পৃথিবীতে কোন জায়গা এখন নিরাপদ না, কেউ বলতেও পারবে না আমার এখানে কিছু হবে না। অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপটি পুরোপুরি নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে হবে। তবে নিশ্চিত করে বলতে পারি, খেলোয়াড়, দলের প্রতিনিধি ও যারা খেলা দেখতে আসবে তাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়া হবে। এসময় বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, সহ-সভাপতি মাহবুব আনাম ও পরিচালক লোকমান হোসেন ভূইয়াসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


Spread the love