শাবিতে ঘৃণা আর লজ্জায় বৃষ্টিতে ভিজছেন জাফর ইকবাল

99
Spread the love

375281শাবি প্রতিনিধি : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি) শিক্ষকদের উপর ছাত্রলীগের ন্যাক্কারজনক হামলায় নিস্তব্ধ, নির্বাক হয়ে গেছেন জনপ্রিয় লেখক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। অভিমানে তিনি ভিসি ভবনের সামনে অঝোর ধারায় বৃষ্টিতে ভিজলেন। লজ্জা আর ঘৃণা তার চোখেমুখে ভর করেছে। অন্য শিক্ষকদের মাথায় ছাতা থাকলেও জাফর ইকবাল ছাতা ছাড়াই সেখানে বসে আছেন। অন্য শিক্ষকরা তার পাশে ভিড় করে আছেন। রোববার বৃষ্টি শুরুর কিছুক্ষণ আগেই শিক্ষকদের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় আন্দোলনরত ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক ফোরামের’ অন্তত সাতজন শিক্ষক আহত হয়েছেন। রোববার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা ছিল এ ফোরামের। গত ১৩ এপ্রিল থেকে তারা অন্দোলন চালিয়ে আসছেন। এদিকে শাবি ভিসি অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভূইয়া রোববার বিকাল ৩ টায় একাডেমিক কাউন্সিলের সভা ডাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি হয়। এর প্রেক্ষিতে ভিসিকে সমর্থন দিয়ে আসা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভোর সাড়ে ৫টার দিকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। সকাল সাড়ে ৭টায় আন্দোলনরত শিক্ষকরা সেখানে ব্যানার নিয়ে আসলে তারা শিক্ষকদের উপর চড়াও হন এবং গলা ধাক্কা দিয়ে এবং মারধর করে সরিয়ে দেয়। এদের মধ্যে ড. জাফর ইকবালের স্ত্রী অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক মাটিতে পড়ে যান। এসময় ভিসি ভবনে ঢুকে দোতলায় নিজের কার্যালয়ে চলে যান অধ্যাপক আমিনুল হক। ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক সৈয়দ সামসুল ইসলাম জানান, হামলায় তাদের ৭জন শিক্ষক আহত হয়েছেন। প্রফেসর ইয়াসমিন হক ছাড়াও মারধরের শিকার শিক্ষকদের মধ্যে রয়েছেন শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি প্রফেসর মোহাম্মদ ইউনূস, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর আবদুল গণি, প্রফেসর এ ন ক সমাদ্দার, মোস্তফা কামাল মাসুদ, এসোসিয়েট প্রফেসর মো. ফারুক উদ্দিন প্রমুখ।


Spread the love