শাহপরীর দ্বীপে পড়ুয়ারা বের করল ‘বেলাভূমি’

80
Spread the love

jজসিম মাহমুদ, শাহপরীরদ্বীপ : স্কুল পড়ুয়া ছেলেমেয়েরা কেউ লিখল বেড়িবাঁধের ভাঙণ নিয়ে, কেউ লিখল লবণের প্রভাবে কৃষির বিপর্যয় নিয়ে, কেউবা লিখল শিক্ষার সমস্যা নিয়ে। সবকিছুতেই তারা যুক্ত করেছে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের বিষয়টি। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই যেন ঝড়ের প্রভাব। সমুদ্রের পানির উচ্চতা বৃদ্ধি, লবণের প্রভাবে গাছপালা মরে যাওয়া, রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে থাকা, যাতায়াতের ক্ষেত্রে চরম ভোগান্তির মত সংকট থেকে পড়ুয়ারাও রেহাই পাচ্ছে না। আর সে কথাই উঠে এসেছে তাদের লেখায়। পড়ুয়াদের এই লেখাগুলো প্রকাশিত হয়েছে দেয়াল পত্রিকা বেলাভূমি’তে। কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার বিচ্ছিন্ন এলাকা শাহপরীর দ্বীপের একমাত্র মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাজী বশির আহম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রথমবারের মত যাত্রা শুরু হল দেয়াল পত্রিকা বেলাভূমি’র। পহেলা নভেম্বর ২০১৫ শনিবার পত্রিকা প্রথম সংখ্যাটি প্রকাশিত হয় ‘ঝড়-জলোচ্ছাস’ বিষয় নিয়ে। শিক্ষার্থীরা অনুভূতি জানাতে গিয়ে বললো, ওরা পত্রিকাটির নিয়মিত প্রকাশনা চালিয়ে যেতে চান। আর শিক্ষকেরা বললেন, এটা বিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েদের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। এর প্রকাশনা অব্যাহত রাখতে প্রয়োজনীয় সব ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নিজেদের তৈরি করা পত্রিকা দেখে নিজেদেরই বিশ্বাস হচ্ছিল না। এমনটাই নবম শ্রেণীর ছাত্র ওমর হায়াতের অনুভূতিতে প্রকাশিত হয়। বললো, নিজেরা যে এত চমৎকার একটি দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ করতে পারি, তা আগে জানতাম না। এই পত্রিকা আমার লেখালেখি চর্চায় বিশেষভাবে সহায়তা করবে। একই শ্রেণীর আরেক শিক্ষার্থী মো. ইসহাক বললো, এই পত্রিকাটি প্রকাশের মধ্যদিয়ে আমরা অনেক বিষয় জানতে পারছি। নিয়মিতভাবে এটি চালিয়ে নিতে পারলে আমরা অনেক উপকৃত হব। এভাবে নিজেরা আরও সমৃদ্ধ হতে পারবো। বেলাভূমি’র উদ্যোক্তাদের প্রতি আমাদের অভিনন্দন। আমরা নিয়মিতভাবে তাদের সহায়তা চাই। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাকারিয়া আলফাজ বলেন, উপকূলের দ্বীপাঞ্চলের শিক্ষার্থীরা অনেক দিক থেকেই পিছিয়ে থাকে। সব ধরণের প্রাকৃতিক বিপদের প্রভাব পড়ে তাদের ওপরও। বাড়িঘরে পানি ওঠার কারণে অনেকে নিয়মিত স্কুলে যেতে পারে না। পিছিয়ে থাকা এই শিক্ষার্থীদের সচেতনতা বাড়াতে বেলাভূমি প্রকাশের এই উদ্যোগ অত্যন্ত প্রসংশনীয়। বিদ্যালয়ে এর প্রকাশনা চালিয়ে নিতে সব ধরণের উদ্যোগ নেওয়া হবে। বেলাভূমি’র প্রথম সংখ্যায় শিক্ষার্থীদের প্রাকৃতিক বিপদের বিভিন্ন বিষয়ে ২০টি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। শিক্ষার্থীরা নিজেরাই লেখার বিষয় নির্ধারণ করে এবং লেখা তৈরি করে। লেখা তৈরির পর তাদের অঙ্গসজ্জা ও পরিকল্পনায় বেলাভূমি’র প্রথম সংখ্যাটি নির্মাণ করা হয়। প্রথম সংখ্যা প্রকাশ উপলক্ষে বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের নিয়ে দিনব্যাপী কর্মশালারআয়োজন করা হয়। সেখানে লেখার প্রয়োজনীয়তা, লেখার বিষয় নির্ধারণ এবং লেখার কলাকৌশল নিয়ে আলোকপাত করেন বেলাভূমি’র উদ্যোক্তা ও উপকূল ঘুরে কর্মরত সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টু। এই কর্মশালায় ষষ্ঠ, সপ্তম ও নবম শ্রেণীর ৩১জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। বিদ্যালয়ে বেলাভূমি প্রকাশ অব্যাহত রাখতে ‘আলোকযাত্রা’ দল গঠণ করা হয়। কর্মশালায় অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে এই দলে তিনজনকে দলনেতার দায়িত্ব দেয়া হয়। নবম শ্রেণীর মো. ইসহাককে দলনেতা-১.একই শ্রেণীর রোকেয়াকে দলনেতা-২ এবং একই শ্রেণীর ওমর হায়াতকে দলনেতা-৩ নির্বাচিত করা হয়। আলোকযাত্রা দলের প্রধান সমন্বয়কারী হিসাদের দায়িত্ব পালন করবেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জাকারিয়া আলফাজ এবং প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করবেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম।


Spread the love