শিবগঞ্জ এম.এইচ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার অবরুদ্ধ

72
Spread the love

 

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

কলেজ সূত্রে জানাযায়, সারাদেশে প্রতিটি উপজেলায় একটি করে স্কুল ও কলেজকে জাতীয়করণের ঘোষনা দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর প্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অধীনে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিটি উপজেলা সদরে মান সম্পন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ জাতীয় করণের লক্ষে কলেজের সংশ্লিষ্ট তথ্যাদি সরবরাহ করার জন্য চিঠি প্রদান করা হয়। এই নির্দেশনা মোতাবেক শিবগঞ্জ সদরে নিজস্ব খেলার মাঠ সহ মনোরম পরিবেশে অবস্থিত শিবগঞ্জ এম.এইচ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদের তথ্যাদি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট প্রদান করে। কিন্তু রহস্য জনক ভাবে ভৌগলিক ও কাঠামোগত শতভাগ এই কলেজের নাম না পাঠিয়ে শিবগঞ্জ সদর থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মহাস্থান মাহি সাওয়ার ডিগ্রী কলেজের নাম পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে শিবগঞ্জ উপজেলা সদর এলাকার সচেতন মহল, শিক্ষক, শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন মহল বিক্ষোভে ফেটে পড়ে এবং বিভিন্ন রাজনীতিকদের চাপ সৃষ্টি হতে থাকে। এমতাবস্থায় গত বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলহাজ্ব আব্দুল মমিন মন্ডল এম.এইচ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের কক্ষে এলে বিক্ষুদ্ধ কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। তখন তারা বিভিন্ন শ্লোগান দিতে দিতে অধ্যক্ষের কক্ষের সামনে জর হতে থাকে এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এসময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা উচ্চ মানের কয়েকটি পটকা বিস্ফোরণ ঘটায়। কলেজে তখন থমথমে অবস্থান বিরাজ করে। পরে কলেজের শিক্ষকরা বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের শান্ত থাকার অনুরোধ জানান। কলেজের নাম না পাঠানো এবং অনাকাঙ্খিত এই পরিবেশের সৃষ্টির জন্য দায়ী কে? এমন প্রশ্ন করা হলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মমিন মন্ডল বলেন, উপজেলা সংশ্লিষ্ট দায়িত্বরত কর্তৃপক্ষ এর জন্য দায়ী। এখন সংশোধন করে এম.এইচ. বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নাম পাঠানো হচ্ছে। এবিষয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান বলেন, মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী আমাদের দায়িত্ব পালন করেছি, তারপরও শিবগঞ্জ উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত শিবগঞ্জ এম.এইচ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নাম বাদ দিয়ে মহাস্থান মাহী সাওয়ার ডিগ্রী কলেজের নাম কেন পাঠানো হলো তা আমার জানা নেই।


Spread the love