সংগ্রাম পরিষদের মানব বন্ধনে বক্তারা ইলিয়াস আলী গুমের খেসারত ক্ষমতাসীনদের অবশ্যই দিতে হবে

51
Spread the love

m elias ali manovbhondhon photoসিলেট প্রতিনিধি : বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য জননেতা এম ইলিয়াস আলী গুমের ৪১ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও এখন পর্যন্ত উদ্ধার না হওয়ার প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে ফিরে পাওয়ার দাবীতে ১৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ইলিয়াস মুক্তি সংগ্রাম পরিষদ , যুব ও ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের উদ্দ্যেগে আয়োজিত মানব বন্ধন চলাকালে বক্তারা বলেন, জননেতা এম ইলিয়াস আলীকে গুম করে বৃহত্তর সিলেটবাসীর আবেগ-অনুভ’তিতে আঘাত করা হয়েছে। সিলেট অঞ্চলের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা ইলিয়াস আলীকে নিয়ে সিলেটের মানুষ সুন্দর আগামীর স্বপ্ন দেখছিল। বৃহত্তর সিলেটকে নেতৃত্ব শূণ্য করার হীন উদ্দ্যেশে এম ইলিয়াস আলীকে গুম করা হয়েছে। বক্তারা বলেন, ইলিয়াস আলী গুমের সাথে জড়িতদেরকে অবশ্যই একদিন  কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে এবং বর্তমান ক্ষমতাসীনদেরকে ইলিয়াস আলী গুমের খেসারত দিতে হবে। বক্তারা অবিলম্বে জননেতা এম ইলিয়াস আলীকে অক্ষত ও সুস্থ অবস্থায় জনতার মাঝে ফিরিয়ে দেয়ার দাবী জানান। পাশাপাশি ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনার, জুনেদ আহমদ ও গাড়ি  চালক আনসার আলী সহ গুম হওয়া সকল নেতাকর্মীদের সন্ধান দাবী করেন। ইলিয়াস মুক্তি সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে এবং ইলিয়াস মুক্তি ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ও ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুল আহাদ খান জামাল এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানব বন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন ইলিয়াস মুক্তি সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচিব এডভোকেট এটিএম ফয়েজ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, জেলা মহিলা দলের সভাপতি পাপিয়া চৌধুরী, জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি সুদীপ রঞ্জন সেন বাপ্পু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক জাকির হোসেন, জেলা বিএনপি’র সাবেক দপ্তর সম্পাদক ময়নুল হক, জেলা তাঁতী দলের সাংগঠনিক সস্পাদক সৈয়দ জয়নুল হক, জেলা মহিলা দলের সাধারন সম্পাদক কাউন্সিলর সালেহা কবির শেপী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল ওয়াহিদ  সোহেল, ইলিয়াস মুক্তি যুব সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচিব আব্দুস সহিদ, সদর উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারন সম্পাদক একেএম তারেক কালাম, জেলা ওলামা দলের সাধারন সম্পাদক মাওলানা কাজী নুরুল হক, জেলা মহিলা দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি এডভোকেট জোহরা জেসমিন, সহ-সভাপতি আছমাউল হাছনা খান, বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আব্দুস সহিদ , নুনু মিয়া, মিফতাউল কবির, অর্পণ ঘোষ, আবদুল হান্নান, রিনুক আহমদ, সৈয়দ লোকমানুজ্জামান লোকমান, দিলোয়ার হোসেন চৌধুরী, ইমাম উদ্দিন, অলি আহমদ, আবদুল কাইয়ুম, আলতাফ হোসেন টিটু, কামাল হোসেন, জাবেদ আহমদ জীবন, দেলোয়ার হোসেন প্রধান. শামসুল ইসলাম লেইছ, আব্দুস সালাম, জুয়েল আহমদ বাচ্চু, মুহিবুর রহমান লিটন, ইকবাল  হোসেন আরিফ, ফাহিম রহমান মৌসুম, ইফতেখার আহমদ সোহেল, আজিজ খান সজীব, রেজোয়ান উদ্দিন সুমন, ইমরানুল ইসলাম জাসিম, জাকারিয়া আহমদ, সাদিক শিকদার, নুরুল ইসলাম রুহুল, ফরিদ আহমদ, কয়েস আহমদ, আশরাফ উদ্দিন রাজিব, ঝলক আচার্য, তারাব আলী লিটন, আব্দুল মোতাকাব্বির চৌধুরী সাকি, তরিকুল ইসলাম, জুবের আহমদ, তানিমুল ইসলাম তানিম, সদরুল ইসলাম লোকমান, মনিরুজ্জামান মিজান,  শেখ শামসুদ্দিন শামসুল, এসএম ফখরুল ইসলাম, জাফরুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান জিয়া, ইজাদুর রহমান মুন্না, সুলেমান আহমদ চৌধুরী, আশরাফ আহমদ, রাসেল আহমদ, আলাল আহমদ,  সালাউদ্দিন, সৈয়দ মিনহাজ, জাহাঙ্গীর আলম, জুবায়ের আহমদ, শিহাব আহমদ, আবুল হোসেন, সাহেব খান, মোহাম্মদ রাজা, আসাদুল হক, রাহাত আলম শোভন, মুহিবুর রহমান, ইকবাল হোসেন, আবু সুফিয়ান তাহের, জুবায়ের আহমদ, নাঈম আহমদ প্রমুখ।


Spread the love