সালমান স্মরণে ববিতা

119
Spread the love

11স্টাফ রিপোর্টার : ইমনের (সালমান শাহ) কথা মনে পড়লেই মনটা ভীষণ খারাপ হয়ে যায়। তার সাথে খুব বেশি ছবিতে আমি অভিনয় করিনি। তিনটি ছবিতে অভিনয় করেছি। ‘মায়ের অধিকার’, ‘স্বপ্নের পৃথিবী’ ও ‘জীবন সংসার’। ‘মায়ের অধিকার’ ছবিতে আমি তার মায়ের ভূমিকায় এবং বাকী দুটি ছবিতে আমি ভাবী চরিত্রে অভিনয় করেছি। সালমান আমাকে খুব সম্মান করতো। নিজের মায়ের মতোই আমাকে শ্রদ্ধা করতো, ভালোবাসতো। ওর মতো বিনয়ী, ভদ্র এবং হাসি খুশি নায়ক আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে সত্যিই এখন আর চোখে পড়েনা। সালমান আমাকে চৎবঃঃু গড়ঃযবৎ বলে ডাকতো। যখন যে সেটে ওর সঙ্গে শুটিং করেছি আমার প্রতি তার আলাদা কেয়ারিং ছিলো। সে নিজেই তখন সুপারস্টার। তারপরও আমি সেট এ থাকলে আমার প্রতি তার বিশেষ দৃষ্টি থাকতো। পুরো ইউনিটকে বলে রাখতো যেন আমার কোন সমস্যা না হয়। সত্যিই সালমান অনেক উদার মনের, একজন ভালো মনের মানুষ ছিলো। আমরা তার শূণ্যতা আজও উপলদ্ধি করি প্রতিনিয়ত। খুব সম্ভবত ‘স্বপ্নের পৃথিবী’ ছবির শুটিং-এর সময়ের কথা বলছি। আউটডোরে শুটিং হচ্ছিলো। তো শুটিং-এ সবারই আলাদা আলাদা চেয়ার থাকে। সালমান যে চেয়ারে বসেছিলো সেই চেয়ারটি আমার খুব পছন্দ হয়। আমি সালমানকে যখন বলি,’ বাহ্ তোমার চেয়ারটাতো খুব সুন্দর।’আমার মুখ থেকে এ কথা শুনার পর আর একটি মিনিটও চেয়ারে বসে থাকেনি সালমান। আমাকে সেই চেয়ার গিফট করলো। সালমানের মৃত্যুর পরও বহু বছর আমি সেই চেয়ার যত্নে রেখেছিলাম। নষ্ট হয়েগেছে। তারপরও তার ভালোবাসার নিদর্শন স্বরূপ আজো রেখে দিয়েছি সেই চেয়ারটি। মাঝে মাঝে সেই চেয়ার দেখে সালমানকে মনেকরি। কতো ভালো মনের, উদার মনের ছিলো সালমান, আমাদের সালমান। তখন বাজারে নতুন সিটিসেল মোবাইল এসেছে মাত্র। বড় বড় সেট। আমিও একটি মোবাইল নিয়েছিলাম। শুটিং এ যখন যেতাম স্বাভাবিকভাবেই আমি মোবাইল সেট নিয়েই যেতাম সাথে। কিন্তু মোবাইল ঠিক মতো অপারেট করতে পারতাম না আমি। বিষয়টি সালমানকে বলার পর সালমান আমাকে নিজের হাতে একটি কাগজে লিখে দিয়েছিলো কীভাবে মোবাইল ব্যবহার করতে হবে। সেই লেখা পড়ে পড়ে পরবর্তীতে আমি মোবাইল ব্যবহার করতে শিখি। তো সালমানের নিজের হাতের লেখা সেই কাগজটি এখনো আমার কাছে বেশ যত্নে রাখা আছে। ওর কথা খুব মনে পড়লে হাতের লেখা সেই কাগজটি বের করে পড়ি। মিস করি সালমানকে। এতো সুন্দর মনের একজন মানুষ, সবার আদরের, ভালোবাসার একজন নায়ক এভাবে চলে যাবে আজো বিশ্বাস করতে খুব কষ্ট হয়।


Spread the love