সিলেটের গোলাপগঞ্জ পুলিশ কর্মকর্তার সততায়

63
Spread the love

fileমো. নাঈম হোসেন  গোলাপগঞ্জ সিলেট : সিলেটের গোলাপগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তার সততার দৃষ্টান্ত স্থাপনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অভিনন্দনের ঝড় উঠছে। গোলাপগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা খন্দকার আতিকুর রহমানের এ সততায় হারিয়ে যাওয়া মালিক যেমন আনন্দিত ঠিক তেমনি তার সহকর্মীসহ গোলাপগঞ্জবাসীও আনন্দিত। অনেকে তার প্রতি ফেসবুকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বিভিন্নভাবে অভিনন্দন জানান।
সম্প্রতি লক্ষীপাশা ইউনিয়নের একটি এলাকা থেকে দায়িত্ব পালন শেষে থানায় ফেরার পথে দেখতে পেলেন রাস্তায় একটি ব্যাগ পড়ে আছে। তিনি ব্যাগটি মাটি থেকে তুলে তার চেইন খোলে দেখতে পান এর ভিতরে স্বর্ণের বেশ কিছু অলংকার রয়েছে। এর মধ্যে ৬টি আংটি, ৪টি দুল, ২টি চুড়ি, ২টি লকেট, ২টি গলার হার, ২টি গলার চেইন, ১টি টিকলি ছিল। প্রায় ২০ ভরি স্বর্ণালংকার পেয়ে তিনি প্রকৃত মালিকের সন্ধান করতে থাকেন। এক পর্যায়ে মালিকের সন্ধান পাওয়া গেলে তিনি মালামাল গুলো তার হাতে তুলে দেন। স্বর্ণের মালিক গোলাপগঞ্জ উপজেলার উত্তর ভাগ গ্রামের মান্না আহমদ তার হারানো মালামাল হাতে পেয়ে অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বললেন আমি স্বর্ণের ব্যাগটি হারিয়ে অনেকটা আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম। একজন সৎ লোকের হাতে পড়ায় আমি তা পেয়েছি। তিনি বললেন পুলিশের মধ্যে এখনও অনেক লোক আছে যাদের সততা দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারে। এজন্য তিনি ঐ পুলিশ কর্মকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করলেন।
এ ব্যপারে গোলাপগঞ্জ থানার অসি একে এম ফজলুল হক শিবলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খন্দকার আতিকুর রহমানের এ দৃষ্টান্ত স্থাপনে আমরা খুবই আনন্দিত আর গর্বিত।


Spread the love