সুনামগঞ্জের নদী পথে চাদাঁ উত্তোলন কে কেন্দ্র করে আ,লীগের দু-গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ,মহিলা সহ আহত ২০

159
Spread the love

37160জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া  সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের নদী পথে নৌ-যান থেকে চাদাঁ উত্তোলন কে কেন্দ্র করে আ,লীগের দু-গ্রুপের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে। এ গঠনায় মহিলা সহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে গুরুত্বর অবস্থায় দুই মহিলা সহ ৭জন কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গঠনাটি আজ শুক্রবার সকাল ৮টায় উপজেলার উত্তরশ্রীপুর ইউনিয়নের পাটলাই নদীতে গঠেছে। পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়-উপজেলা সীমান্তের চারাগাঁও,বাগলী শুল্ক ষ্ঠেশন দিয়ে আমদানী কৃত কয়লা,চনাপাথর ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও কার্গো বোঝাই করে পাটলাই নদী দেশের বিভিন্ন স্থানে পরিবহন করা হয়। আর এ সকল নৌকা ও কার্গো থেকে দেবত্তর ষ্টেট্র,কখনও ওয়াকফ ষ্টেট্র,আবার কখনো খাশ কালেকশনের নামে প্রতিদিন চাদাঁবাজি করছে আ,লীগ,ছাত্রলীগ ও এলাকার স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। কেউ চাদাঁ না দিলে ও মুখ খুলেই এই সব সন্ত্রাসীরা দেশীও অস্ত্র নিয়ে হামালা চালায় তাদের উপর। কেড়ে নেয় নগদ টাকা,মূল্যবান চিনিস পত্র,বেধেঁ রাখে হাত,পা,নৌকা। আর এই চাদাঁবাজি চলছে দীর্ঘ দিন ধরেই। আজ শুক্রবার সকাল ৮টায় উত্তরশ্রীপুর ইউনিয়নের কুড়েরপার গ্রামের আ,লীগ নেতা শাহনূর মিয়া ওয়াকফ ষ্টেট্র এর নামে তার লোকজন নিয়ে পাটলাই নদীতে চাঁদা উত্তোলন করতে যায়। এ খবর পেয়ে পাশ্বর্বতী শিবরামপুর গ্রামের আরেক আ,লীগ নেতা মতিউর রহমান খাস কালেকশনের নামে নৌকা থেকে চাদাঁ উত্তোলন করতে গেলে এক পক্ষ অন্য পক্ষ কে বাধা দেয়। এ ঘটনার জের ধরে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে দু-গ্রুপের সন্ত্রসীরা সংঘর্ষে জরিয়ে পরে। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী সংর্ঘষে উভয় পক্ষের মহিলা সহ ২০ জন আহত হয়েছে। এঘটনার পর থেকে এলাকায় থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন সময় আবার ও সংর্ঘষে লিপ্ত হতে পারে আশংকা করছে এলাকার শান্ত প্রিয় নিরীহ মানুষ। তাহিরপুর থানার ওসি শহিদুল্লাহ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান-লিখিত অভিযোগ পেলে এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Spread the love