স্বাধীনতার ৪৫বছর অপেক্ষা করেও কোন কাজ হয়নি একমাত্র কাঠের ব্রিজই ভরসা বদরগঞ্জ ও মিঠাপুকুর উপজেলার মানুষের

45
Spread the love

8ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা, প্রতিনিধি : রংপুরের বদরগঞ্জ ও মিঠাপুকুর উপজেলার দু’ ইউনিয়নের ১৫গ্রামের মানুষের ভরসা একমাত্র কাঠের ব্রিজ। সেটিও আবার সরকারি অনুদানে নির্মিত হয়নি। এলাকার লোকজন নিজেদের প্রয়োজনে নিজেরাই নির্মাণ করেছেন। ফলে অনেকটা ঝুঁকি নিয়েই নদী পারাপার করছেন ১৫গ্রামের মানুষজন। স্বাধীনতার পর থেকে এলাকার মানুষ ব্রিজ নির্মাণের দাবী জানিয়ে আসলেও কোন কাজ হয়নি। শুধুমাত্র নির্বাচন আসলেই প্রার্থীরা ভোটের আশায় ব্রিজ নির্মাণের প্রতিশ্র“তি দিয়ে থাকেন। নির্বাচন হলেই তারা ভুলে যান- এভাবেই কেটে গেছে স্বাধীনতার ৪৫বছর।
জানা যায়, বদরগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন ও মিঠাপুকুর উপজেলার ময়েনপুর ইউনিয়ন দু’ভাগ করে রেখেছে ‘কাঠগড়া’ নদী। বদরগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের জুম্মাপাড়া, গাছুয়াপাড়া, ডাঙ্গোয়ালপাড়া, নাপিতপাড়া, সিংপাড়া, নয়াপাড়া এলাকার বেশিরভাগ মানুষের জমিজমা ও আত্মীয়স্বজন সবই নদীর ওপারে। মিঠাপুকুর উপজেলার ময়েনপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর, কসবা, শিকারপুর, গাছুয়াপাড়া, দক্ষিণপাড়া, বোয়ালডোবা, কদমতলা, সরকারপাড়া, মণ্ডলপাড়া, নাউয়ারপুকুর এলাকার মানুষের শিক্ষাসহ সকল আর্থসামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয় বদরগঞ্জের কুতুবপুর ইউনিয়নে। কারণ ওই স্থান থেকে মিঠাপুকুর শহরের দূরত্ব প্রায় ২০কিলোমিটার। ওই এলাকার আশেপাশে তেমন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় ওইসব এলাকার শিশুরা যেমন কুতুবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়ন করে। এছাড়া চাষিরাও তাদের উৎপাদিত পণ্য কুতুবপুরের নাগেরহাটে বিক্রি করে থাকেন। একারণে ওই এলাকার মানুষ কসবা নামক স্থানে কাঠগড়া নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণের দাবীতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন। কিন্তু এতে কোন কাজ হয়নি। কসবা এলাকায় বসবাসকারী মজিবর রহমান মাষ্টার বলেন, ব্রিজ নির্মাণের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সরকারের উচ্চ পর্যায়েও অনেক আবেদন নিবেদন করেছি কিন্তু কোন কাজ হয়নি। ওই এলাকার আব্দুল আলীম, দুদু মিয়া আবেদ আলীসহ অন্যরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভোট আসলেই সবাই ব্রিজ নির্মাণের প্রতিশ্র“তি দেন। আর ভোট শেষে ব্রিজ নির্মাণের কথা সবাই বেমালুম ভুলে যান। এভাবেই কেটে গেছে ৪৫বছর। আর যে কতো বছর কাটাতে হবে তা উপর ওয়ালাই জানেন। তবে কুতুবপুর ইউনিয়নের জুম্মপাড়ার মিলন মিয়া জানিয়েছেন- কসবায় ব্রিজ নির্মাণের বিষয়টি মিঠাপুকুরের সংসদ সদস্য এইচএন আশিকুর রহমান এবার নিজেই সিরিয়াসলি দেখছেন বলে জানতে পেরেছি। তাই আশা করছি এবারে কসবায় কাঠগড়া নদীর উপর ব্রিজ নির্মিত হবে। কুতুবপুর ইউপি’র চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান দুলু বলেন, কাঠগড়া নদী বদরগঞ্জ ও মিঠাপুকুরকে দু’ভাগ করলেও মূলতঃ নদীটি মিঠাপুকুর উপজেলায় অবস্থিত। তিনি বলেন, কুতুবপুর ইউনিয়নের লোকজনের জমিজমা, আত্মীয়-স্বজন মিঠাপুকুরের ময়েনপুরে রয়েছে ।তবে শিক্ষাসহ আর্থসামাজিক কাজে ময়েনপুরের লোকজনের কাছে কুতুবপুর সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নিতে হবে মিঠাপুকুর থেকেই। এব্যাপারে কথা হলে বদরগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবু তালেব সরকার বলেন, মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদের অধীনে সম্ভবতঃ কাঠগড়া নদীর উপর একটি ফুট ব্রিজ নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে সেটি কসবায় নয়। তিনি আরো বলেন, বদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ থেকে কসবায় ব্রিজ নির্মাণ করা সম্ভব কিনা তা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে দেখা হবে।


Spread the love