স্বামী হত্যায় স্ত্রী-পুত্রসহ আদালতে ৬ ঘাতকের স্বীকারোক্তি

77
Spread the love

Sylet041445865597স্টাফ রিপোর্টার : সিলেট নগরীর আখালিয়ার সাদিকুর রহমান সাদ (৩৭) খুনের ঘটনায় স্ত্রী, পুত্রসহ ৬ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্ধী প্রদান করেছে। গতকাল সোমবার বিকেলে সিলেট মহানগর হাকিম আদালত- ২ এর বিচারক আনোয়ারুল হক এ জবানবন্দী গ্রহণ করেন। ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্ধীতে আদালতকে ঘাতকরা জানায়, সম্পত্তির লোভেই বালিশ চাপা দিয়ে সাদের মৃত্যু নিশ্চিত করে তারা। পরে হঠাৎ স্ট্রোক করে সাদ মারা গেছেন বলে তারা প্রচার চালায়। ঘাতকদের স্বীকারোক্তি দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এসএমপির জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আখতার হোসেন।
আদালতে স্বীকারোক্তি প্রদানকারীরা হলো, নিহত সাদের স্ত্রী সৈয়দা রেখা বেগম (৩৫), কুমারগাঁও শেখপাড়ার বাসিন্দা মৃত আব্দুল হান্নানের ছেলে আলী হোসেন (২৫), নবীগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুরের বাসিন্দা খালিকুজ্জামান লায়েক (৩০), বিয়ানীবাজার কাটরিয়া গ্রামের বাসিন্দা ফখরুল ইসলামের ছেলে রেজওয়ান হোসেন (২৪), সিলেট সদর উপজেলার মোল্লাগাঁও ফতেপুরের বাসিন্দা রফিক মিয়ার ছেলে তাজ উদ্দিন (১৬) ও সাদের ছেলে নাদিরুল জামান কমল (১২)।
এর পূর্বে, গত রোববার ভোর রাতে এসএমপি’র জালালাবাদ থানার আখালিয়া নোয়াপাড়া বন্ধন ডি/৭ নং বাসা ও কুমারগাঁও এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত রেখা বেগম স্বামী হত্যার সাথে জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করে জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার হোসেন বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিজ হাতে স্বামীকে হত্যা করেছে বলে স্বীকার করেন নিহত সাদের স্ত্রী সৈয়দা রেখা বেগম।
প্রসঙ্গত, গত ১৯ অক্টোবর নগরীর আখালিয়া নোয়াপাড়া বন্ধন ডি/৭ নং বাসা বাসিন্দা সাদিকুর রহমান সাদ (২৭) এর রহস্যজনক মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর স্ত্রী দাবি করেছিলেন তাঁর স্বামী স্ট্রোক করেছেন। তবে সাদ আলীর পরিবার দাবি করছিল তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।


Spread the love