হবিগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে লাঞ্ছনাকারী সেই বখাটে গ্রেফতার

75
Spread the love

54572হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে দিনদুপুরে প্রকাশ্যে রাস্তায় লাঞ্ছিত করার ঘটনায় বখাটে রাহুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে শহরতলীর রিচি গ্রাম থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে। এদিকে উক্ত ঘটনার বিচার দাবিতে ফুঁসে উঠেছে নাগরিক সমাজ। ক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে সর্বস্তরের মানুষ। গতকাল শুক্রবার মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার অপর সহযোগিদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে রোববার থেকে ফের আন্দোলনের ঘোষণা দেয়া হয় সমাবেশে। বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শামীম আক্তার চৌধুরী শেলি এ ঘোষণা দেন। তিনি ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, জেলা শহরের রাজনগর এলাকার এতিমখানা সড়কের জনৈক মোবারক হোসেনের ভাগ্নে হবিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র বখাটে রুহুল আমিন রাহুল কিছুদিন পূর্বে ওই বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী হবিগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর জনৈক ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ওই ছাত্রীর উপর ক্ষুব্ধ হয়ে রাহুল স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে উত্যক্ত করতো। বিষয়টি ওই স্কুলছাত্রী তার পরিবারকে জানালে তারা রাহুলকে শাসিয়ে দেন। এতে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ২৬ আগস্ট স্কুল ছুটির পর ওই ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের সামনে রাস্তায় চড়-থাপ্পড় মারতে থাকে বখাটে রাহুল। ঘটনার সময় কে বা কারা চড়-থাপ্পরের ৩১ সেকেন্ডের ভিডিও করে। এ ভিডিওটি ৩ সেপ্টেম্বর ফেসবুকে আপলোড করা হয়। এর পরই দেশ-বিদেশে বিষয়টি সমালোচনার ঝড় তোলে। শুক্রবার দুপুরে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে সাইফুর রহমান টাউন হলের সামনে ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন শ্রেণী, পেশার কয়েকশ’ মানুষ অংশ নেন। তোফাজ্জল সোহেলের পরিচালনায় এতে বক্তৃতা করেন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শামীম আক্তার চৌধুরী শেলি, তাহমিনা বেগম গিনি, অ্যাডভোকেট ত্রিলোক কান্তি চৌধুরী বিজন, আহমেদ কবির আজাদ, শোয়েব চৌধুরী, ডা. এসএস আল আমিন সুমন প্রমূখ। বক্তারা ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। এ সময় রোববার ঘটনার বিচার দাবিতে মানববন্ধন ঘোষণা দেন শামীম আক্তার চৌধুরী শেলি। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সমাজের অনেকেই আপোষের জন্য এগিয়ে আসে। অনেকেই বিভিন্ন রকম প্রভাব খাটান। কিন্তু এ ঘটনায় যেন কেউ এখন আপোষের জন্য না যায়। তার যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হয়। মানববন্ধনে রাজনীতিবিদ, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।
হবিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবুল লেইছ বখাটে ওই যুবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে বলেন, সে আমার স্কুলের ছাত্র। তাই রোববার স্কুল খোলার পর শিক্ষকদের সাথে আলোচনা করে তার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তিনিও ওই যুবকের শাস্তি দাবি করেন।
আইননানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান সদর থানার ওসি নাজিম উদ্দিন। তিনি বলেন, শুক্রবার দুপুরে শহরতলীর রিচি গ্রাম থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। লাঞ্ছিত মেয়ের (তাছরিন আক্তার অর্ণা) বাবা মো. শাহজাহান মিয়া বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। সে অনুযায়ী আইননানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


Spread the love