হাকালুকিতে অতিথি পাখি আসতে শুরু করেছে

75
Spread the love

index2সাথী আকতার সিলেট : সিলেট ও মৌলভীবাজারের ৫টি উপজেলা নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম হাকালুকি হাওর অবস্থিত। ১৮ হাজার হেক্টর এলাকা নিয়ে এর অবস্থান। অতিথি পাখি আসতে শুরু করেছে। শীত মৌসুম শুরু হতে না হতেই সাইবেরিয়া, চীনসহ অন্যান্য দেশ থেকে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে কিছু অতিথি পাখি হাওরে আসতে শুরু করেছে। আর কিছুদিন পরেই ঝাঁকে ঝাঁকে আসা এসব অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখরিত হয়ে উঠবে হাওর এলাকার বিলগুলো।
বিভিন্ন দেশ থেকে আসা পাখি খাবারের সন্ধানে অন্যতম জলাশয় হাকালুকির বিলে নির্বিঘেœ খাবার সংগ্রহ করে। দেশের যে কয়টি স্থানে অতিথি পাখির সমাগম ঘটে তার মধ্যে হাকালুকি হাওর অন্যতম। অতিথি পাখির সর্ববৃহৎ এই সমাগমস্থলে প্রতি বছর পুরো শীত মৌসুম হাওরে বিচরণ করে। পাখিরা আবার গরমের শুরুতেই তারা ফিরে যায় স্ব-স্ব আবাসস্থলে। এশিয়ার বৃহৎ হাকালুকি হাওর বাংলাদেশের একটি অন্যতম মিঠাপানির জলাভূমি। পশ্চিমে ভাটেরা পাহাড় ও পূর্বে পাথারিয়া মাধব পাহাড়বেষ্টিত এ হাওর সিলেট ও মৌলভীবাজার জেলার ৫টি উপজেলায় বিস্তৃত। ছোট-বড় প্রায় ২৩৮টিরও বেশি বিল ও ছোট-বড় ১০টি নদী নিয়ে গঠিত এ হাওর বর্ষাকালে প্রায় ১৮ হাজার হেক্টর এলাকায় পরিণত হয়। এই হাওরে বাংলাদেশের মোট জলজ উদ্ভিদের অর্ধেকেরও বেশি এবং দেশের গুরুত্বপূর্ণ ও সংকটাপন্ন উদ্ভিদ ও প্রাণী প্রজাতি পাওয়া যায়। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে ছুটে আসে নানা প্রজাতির রঙ-বেরঙের লাখ লাখ অতিথি পাখি। পাখিগুলোর অবাধ বিচরণে অন্যরকম সৌন্দর্য ফুটে ওঠে হাওরের বিলগুলোতে।


Spread the love