গোয়াইনঘাটে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও ভারি বর্ষণে বন্যার পরিস্থিতি অপরিবর্তিত

36

রফিক সরকার গোয়াইনঘাট (সিলেট) সংবাদদাতা : সিলেটের গোয়াইনঘাটে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ও গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষণে সৃষ্ট বন্যার পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। গত এক সপ্তাহ যাবত টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে গোয়াইনঘাট উপজেলার প্রায় ৯০% শতাংশ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। গত মঙ্গলবার থেকে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে পানি বৃদ্ধি পাওয়াতে গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরের সাথে প্রায় ইউনিয়নের সাথে সড়ক পথে যোগাযোগ সম্পুর্ণ রুপে বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ফলে পানি বৃদ্ধির কারণে এই উপজেলার ৩ লক্ষাধিক মানুষ রয়েছ ঘরবন্দি অবস্থায়। অপর দিকে, গোয়াইনঘাট উপজেলাকে দ্রুত দূর্যোগপুর্ণ এলাকা হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছেন উপজেলাবাসী। এবং গোয়াইনঘাট উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির খোঁজ খবর নিয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য ত্রাণ ও দূর্যোগ মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করে ৩৫ টন জিআর চাল বরাদ্দ করেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। এবং ৩৮০ প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্দ করা হয়েছে। জানা যায়, এখন পর্যন্ত জাফলংয়ের পিয়াইন নদী ও ডাউকি নদী এবং জৈন্তাপুরের সারী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখার আগ পর্যন্ত উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও মেম্বারসহ সরকারি ট্যাগ অফিসার গণ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছেন বলে জানান তারা। ত্রাণসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমসহ উপজেলা বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুস সাকিব। গোয়াইনঘাট উপজেলার বন্যা সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সহ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম মনিটরিং করতে মাঠে তৎপর রয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুস সাকিব।