বিশ্বনাথে করোনা আক্রান্তের সেঞ্চুরী

10
বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: আপন গতিতে এগিয়ে চলা করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় সেঞ্চুরী পূর্ণ করেছে। মঙ্গ লবার রাতে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় পর পাওয়া রির্পোটে বিশ্বনাথের আরো ৫ জন করোনা পজেটিভ হলে উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সেঞ্চুরী পূর্ণ হয়।
সামাজিক দূরত্বের পাশাপাশি সরকারি কোন নির্দেশনা মেনে না চলার কারণে দ্রুতই বিশ্বনাথে বেড়ে চলছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখি বিশ্বনাথে রাতের বেলাও থাকে দোকান-পাঠ। আর তাতে ক্রেতাদেরও থাকে সরব উপস্থিতি। যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের পরও অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে চলছে যানবাহন। মাস্ক ব্যবহারের ক্ষেত্রে চরম হারে বৃদ্ধি পেয়েছে মানুষের অনিহা।
এদিকে বিশ্বনাথে বসবাসকারী ফেরীওয়ালা প্রতিনিয়তই ঢাকা বা নারায়গঞ্জ বা নরসিংদী থেকে নতুন নতুন কাপড় এনে সেগুলো বিক্রি করার জন্য গ্রামে-গঞ্জে চষে বেড়াচ্ছেন। আর এসব যায়গা থেকে যে করোনা ভাইরাস বিশ্বনাথে প্রবেশ করছে না কিংবা ফেরিওয়ালারা যে গ্রামে-গঞ্জে করোনা ভাইরাস চড়াচ্ছেন না তার খবর কে রাখে? তার সাথে রয়েছে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে থাকা ছোট-বড় কাপড়ের ব্যবসা।
মঙ্গলবার (৩০) রাত পর্যন্ত প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথে উপজেলার মোট আক্রান্তের সংখ্যা সেঞ্চুরী পূর্ণ হওয়ার পাশাপাশি আক্রান্তদের মধ্যে করোনা জয় করে স্স্থু জীবনে ফেরার সংখ্যাও হাফ সেঞ্চুরী পূর্ণ করেছে। আক্রান্তদের মধ্যে আবার মৃত্যুবরণ করেছেন ৩ জন। এখনও সঠিকভাবে সরকারি নির্দেশনা না মানলে সামনের দিনে বিশ্বনাথবাসীকে অনেক কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে বলে আশংঙ্কা বিজ্ঞজনের।
গত দুদিনে বিশ্বনাথে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা-স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনা পজেটিভ হয়েছেন ৮ জন। এদের মধ্যে সোমবার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন- উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ আবদুস শহিদ (৩৬), উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স আবদুস সাকুর ও উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের তেঘরী গ্রামের তেরাবান বিবি (৬০)।
আর মঙ্গলবার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন- উপজেলার আবদুল মোতালেব (১০০), দৌলতপুর ইউনিয়নের আটপাড়া গ্রামের তাহেরুল ইসলাম (৫৭), রামপাশা ইউনিয়নের বিশ্বনাথেরগাঁও গ্রামের ইনাম আহমদ ফারুক (৪০), খাজাঞ্চী ইউনিয়নের পূর্ব রহিমপুর গ্রামের লিপি বেগম (৩০), দেওকলস ইউনিয়নের কালীজুড়ী গ্রামের সুবেদ আহমদ (২৬)।
গত দুই দিনে (সোমবার-মঙ্গলবার) নতুন করে বিশ্বনাথ উপজেলায় আরো ৮ জন করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবদুর রহমান মুসা।